হালদা ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত তৌকীর

হালদা ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত তৌকীর

1370
SHARE

রঙিন শামিয়ানার নৌকা। নৌকার মাঝে চেয়ারে বসা প্রতাপশালী নাদের চৌধুরী, সঙ্গে তার স্ত্রী হাসু। নদীর পাড়ে মলিন মুখে দাঁড়িয়ে আছেন হাসুর বাবা-মা ও পাশের বাড়ির যুবক বদি। নৌকার ইঞ্জিন চালু হতেই মুখ তুলেই বাবা-মায়ের দিকে হাসার করুণ চাহনি। মেয়ের চলে যাওয়া দেখে মায়ের চোখে পানি। একবছর পর মেয়ে এলো, তাও সপ্তাহ না পেরোতেই স্বামী জোর করে নিয়ে যাচ্ছেন। অবশ্য বেশি দূর যেতে হয়নি। নৌকা খানিকটা যাওয়ার পরই পরিচালক ওকে বলে চিৎকার দিয়ে উঠলেন।

হালদা পাড়ে চলচ্চিত্র জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘হালদা’ ছবির শুটিং। এতে নাদের চৌধুরীর চরিত্রে অভিনয় করছেন জাহিদ হাসান, হাসু চরিত্র তিশা। হাসুর বাবা-মার ভূমিকায় আছেন ফজলুর রহমান বাবু ও মোমেনা চৌধুরী এবং বদির চরিত্রে মোশারফ করিম। এছাড়া আরো অভিনয় করছেন রুনা খান, শাহেদ আলী, সুজাত শিমুল প্রমুখ।

২৬ সেপ্টেম্বর থেকেই শুটিংয়ের লোকজন নিয়ে হালদা পাড়ে আছেন তৌকীর আহমেদ। শুটিং চলছে চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও রাউজান উপজেলার বিভিন্ন স্থানে।

halda-1রাউজানের পশ্চিম গহিরা বড় ুয়া পাড়ায় শুটিংয়ের সময় চারদিকে লোকে গিজগিজ করছে। তারকা শিল্পীদের একনজর দেখার জন্য সেকী ভিড়। ভিড় সামাল দিতে শুটিং ইউনিটের কর্মীদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। সুযোগ পেলেই বাইরের লোক ঢুকে পড়ছে ইউনিটে। তারকাদের সঙ্গে মুঠোফোনে সেলফি তোলার প্রতিযোগিতা।

নৌকায় করে তিশাকে নিয়ে জাহিদ হাসানের চলে যাওয়ার দৃশ্য ধারণ করতে হয়েছে বেশ কয়েকবার। বারবার ক্যামেরার ফ্রেমে অতি উৎসাহী লোক ঢুকে পড়ছে। অনুরোধ নিষেধ কোনো কিছুই কানে তুলছে না। শেষমেশ তো ভিড় সামাল দিতে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে আসতে হয়েছে।

‘হালদা’ ছবি সম্পর্কে পরিচালক তৌকীর আহমেদ জানান, ‘হালদা’ একটি গুরুত্বপূর্ণ নদী। এটি অনেকেই জানেন না। এই নদীকে আমি দেশের মানুষের কাছে তুলে ধরব। এর মাধ্যমে হালদা পাড়ের মানুষের জীবন উঠে আসবে। এতে থাকবে মাছের পোনা ধরার উৎসব, যা এই জনপদের মানুষের আনন্দের অন্যতম উপলক্ষ। এছাড়া রাখা হয়েছে চট্টগ্রামের ঐতিহ্য মাইজভান্ডারী গান, বলীখেলা, নৌকাবাইচও। শুধু তাই নয়, মাছের পোনা ছাড়তে বৃষ্টির প্রার্থনা করে ব্যাঙের বিয়ে দেয়ার দৃশ্যও ধারণ করা হয়েছে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার বেশির ভাগ সংলাপও চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায়। তিনি আরো জানান, চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য নদী ও মা। নদী ও মাকে ভালোবাসতে হবে। তবেই আমরা সবাই ভালো থাকব।