সারারাত কেঁদেছি!-কুসুম শিকদার

সারারাত কেঁদেছি!-কুসুম শিকদার

168
SHARE
Kusom-Shikder

একটি গানের মিউজিক ভিডিও। একজন অভিনেত্রী ও গায়িকার বিরুদ্ধে অশ্লীলতার অভিযোগ। গোটা মিডিয়া তোলপাড়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে নানা কথা, আলোচনা ও সমালোচনা। গায়িকার নাম কুসুম শিকদার। গুণী এই অভিনেত্রী এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন নানা কথা। তারই চুম্বক অংশ আনন্দ আলোর পাঠকদের জন্য।

আনন্দ আলো: ক্যারিয়ারে গানই ছিল আপনার প্রথম প্রেম। এরপর দীর্ঘ বিরতি নিয়ে আবারও গানে ফিরলেন…।

কুসুম শিকদার: না, আমি আসলে ফিরিনি। বলতে পারেন, আমি এমনই। খুব বেশি কাজ কখনোই কোনোদিন করিনি। আমি বেছে বেছে সবসময় কাজ করেছি। এখনও তাই। অনেকদিন পর আসলে গানে ফেরা হলো এটা ঠিক।

আনন্দ আলো: আপনার ‘নেশা’ গানটি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। অশ্লীলতার দায় দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে আপনি কী বলবেন?

কুসুম শিকদার: আমার জন্য বিষয়টি অবাক করার মতো। কারণ অনেক অনলাইন পোর্টাল আমার সঙ্গে কোনো কথা না বলেই যা খুশি লিখে দিয়েছে। একজন সিনিয়র অভিনেত্রী হিসেবে এই দায়বদ্ধতা নিয়ে কথা বলতেই পারি। আমি তাই খুবই অবাক হয়েছি।

আনন্দ আলো: আপনার গানের লিরিকেও অশ্লীলতার অভিযোগ তোলা হয়েছে

কুসুম শিকদার: এটা আমার কাছে সবচেয়ে হাস্যকর। কারণ একটা তথ্য বলি, তা হলো নেশার লিরিকটা আমার এবং লেখাটি আমার প্রথম কাব্যগ্রন্থ থেকে নেয়া। যে কাব্যগ্রন্থ আনন্দ আলো সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছে। অথচ সেই লিরিকেই কি না এমন অপবাদ!

আনন্দ আলো: এই বিষয়গুলো নিয়ে অনেকেই বলছেন যে, একটা মিডিয়া হাইপ তোলার জন্য বিষয়গুলো করা হচ্ছে…

কুসুম শিকদার: এর কোনো ভিত্তি কেউ খুঁজে পাবেন না। কারণ দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছি। একাধিক নাটকের কাজ করেছি। যে ৩টি চলচ্চিত্র করেছি, সেটাও বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত। আর আমি গৌতম ঘোষ স্যারের ‘শঙ্খচিল’-এ কাজ করেছি। সুতরাং আমার দর্শকদের এটুকু আস্থা নিশ্চয়ই আছে যে, কুসুম অন্তত এমন কাজ করবে না, যা আপত্তিকর। আর ধরুন, আমি অন্য দেশের কোনো লেবেলের যদি কাজ করতাম তখন কাকে অভিযোগ জানাতো…! আমি তো ইউটিউবের মতো গেøাবাল প্লাটফর্মে গানটি রিলিজ দিয়েছি। কিন্তু কোনো হতাশা কাজ করেনি, এসব খবরে…।

আনন্দ আলো: পরিবারও নিশ্চয় কষ্ট পেয়েছে

কুসুম শিকদার: দেখেন, আমি খবরগুলো পড়ে সারারাত কেঁদেছি। অনেক সময় ভাবিÑ ইন্ডাস্ট্রিই ছেড়ে দেবো। কিন্তু তখন মনে হয় যে দেশে আইয়ুব বাচ্চুর মতো লিজেন্ড তারকারা বলেন গান ছেড়ে দেবো…! কতটা দুঃখ নিয়ে তারা বলেন। চিন্তা করেছেন…! তাই আমি মনে করি, মিডিয়ার পাশাপাশি দর্শকদেরও দায়িত্ববোধ থাকা উচিত। কোনো বিষয়ে হুট করে কোনো মন্তব্য করা ঠিক নয়।