শ্রীলঙ্কায় শততম টেস্ট অনেক শুভকামনা বাংলাদেশ দলের জন্য

শ্রীলঙ্কায় শততম টেস্ট অনেক শুভকামনা বাংলাদেশ দলের জন্য

389
SHARE
Cricket

মামনুর রহমান

সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ড ও ভারত সফরের চিত্র খুব একটা ভালো নয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জন্য। আবারও যেন পুরনো সেই দুঃসহ স্মৃতি তাড়া করছে। হেরে যাওয়া বাংলাদেশ… তবে প্রত্যাশার ঢেউ এতটুকু কমেনি। নিউজিল্যান্ড, ভারতের পর এবার বাংলাদেশের ক্রিকেট লড়াই হবে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কা পৌঁছে গেছে ইতোমধ্যে। দলের নতুন ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন বলেছেন, শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ ভালো খেলবে আশা করছি। শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ শততম টেস্ট ক্রিকেট খেলবে। এটাকেই প্রেরণার উৎস ভেবে লড়াই করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এমনটাই জানালেন দলের ম্যানেজার।

ইনজুরি কাটিয়ে খেলার জন্য পুরোপুরি ফিট হয়েছেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। তিনিও আছেন এবার বাংলাদেশ দলে। কাটার মাস্টারের ওপরই সবার দৃষ্টি। দেখা যাক তিনি এবার কি করেন। তবে কাটার মাস্টার বলেছেন, শ্রীলঙ্কায় এবার তিনি বিশেষ চমক দেখাতে চান। এজন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। একই প্রত্যাশা দলের কনিষ্ঠতম সদস্য মেহেদী হাসান মিরাজেরও। শ্রীলঙ্কা সবার আগে সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, নতুন কিছু করার চেষ্টা করবো দলের জন্য। অবশ্যই শততম টেস্টকে স্মরণীয় করে তুলতেই চাই।

অন্যান্য সময় বিদেশ যাত্রায় বিমানবন্দরে দলের তারকা খেলোয়াড়রাই কথা বলেন। এবার তাদেরকে তেমন কথা বলতে দেখা গেল না। অবশ্য সাকিব, মাহমুউল্লাহ ও তামিম পিসিএল এ খেলার জন্য দুবাইয়ে ছিলেন। তামিম দুবাই থেকে সরাসরি শ্রীলঙ্কায় গিয়ে দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

খেলোয়াড়দের ইনজুরিই বাংলাদেশ দলের এখন প্রধান সমস্যা। ওয়ানডে ও টি-২০ এর ক্যাপ্টেন মাশরাফির হাতের আঙ্গুলের চোট নিয়ে সমস্যা ছিল। টেস্ট ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিমেরও একই সমস্যা। তবে দলের কর্মকর্তারা বলেছেন, বাংলাদেশ দলে এই মুহূর্তে ইনজুরি সমস্যা নাই। সব খেলোয়াড়ই সুস্থ আছেন। কাজেই শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ভালো করবে একথা জোর দিয়ে বলা যায়।

আমরাও সেই আশায় আছি। আসলে ক্রিকেট বাংলাদেশে একমাত্র খেলা যার জন্য দলমত নির্বিশেষে সবাই ঐক্যবদ্ধ। একমাত্র ক্রিকেটেই বাংলাদেশের মানুষের একটি মাত্র দল আছে। সেজন্য প্রত্যাশার পাল্লাটা ভারী থাকে সব সময়।

ফিরে দেখা

মুখোমুখি ১৬ টেস্টের ১৪টিতেই শ্রীলঙ্কা জিতেছে। ড্র হয়েছে বাকি দুটি। প্রায় একই রকম একতরফা ওয়ানডের পরিসংখ্যানটাও। ৩৮ ম্যাচের ৩৩টিতেই জিতেছে শ্রীলঙ্কা, চারটিতে জয় বাংলাদেশের। পরিত্যক্ত হয়েছে একটি ওয়ানডে। অতীত রেকর্ড দেখলে তাই অনেক এগিয়ে রাখতে হবে শ্রীলঙ্কাকে। কিন্তু অতীত মাথায় রাখছেনই না এই সিরিজে শ্রীলঙ্কার টেস্ট অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ। বাংলাদেশকে তিনি বিচার করছেন বর্তমান দিয়ে। আর তাতেই তাঁর মনে হচ্ছে, শ্রীলঙ্কা সফর করা বাংলাদেশ দলগুলোর মধ্যে এবারের দলটাই সেরা!

চোটের কারণে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস না থাকায় এই সিরিজেও শ্রীলঙ্কা টেস্ট দলের নেতৃত্ব হেরাথের কাঁধে। এর আগে গত বছর অক্টোবর-নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজেও তিনি অধিনায়কত্ব করেছেন। দুই টেস্টের ওই সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়টা সহজ হবে না বলেই মনে করেন হেরাথ। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে জানিয়েছেন, ‘আমি মনে করি, শ্রীলঙ্কা সফরে আসা বাংলাদেশের সেরা দল এটিই। কয়েক মাস আগেই ওরা ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে। যদিও তারপর ফর্ম খুব ভালো যায়নি, নিউজিল্যান্ড ও ভারতে হেরেছে।’

বাংলাদেশের কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে অনেক দিনের সম্পর্ক হেরাথের। হাথুরুসিংহে কোচিংয়ে আসার পরে হেরাথ তাঁকে পেয়েছেন পরামর্শক হিসেবেও। আর শুধু হাথুরুসিংহে কেন, বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ থিলান সামারাবীরা ও ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়নও তো শ্রীলঙ্কান।

কোচিং স্টাফদের মধ্যে এত শ্রীলঙ্কান থাকায় এ সফরে বাংলাদেশ বাড়তি সুবিধা পাবে বলেই মনে করেন হেরাথ, ‘ওদের দলে এত বেশি শ্রীলঙ্কান যে আমাদের দল ও খেলা নিয়ে ওদের একটা ভালো ধারণা তৈরি হয়েছে। ওরা তিনজনই বাংলাদেশের জন্য দারুণ কাজ করে যাচ্ছে, বিশেষ করে হাথুরুসিংহে। এ কারণেই আমি বলছি, এই সিরিজটি হবে আমাদের জন্য দারুণ চ্যালেঞ্জিং। অন্য কোচদের চেয়ে আমাদের সম্পর্কে ওদের ধারণা বেশি।’

প্রস্তুত শ্রীলঙ্কা দল

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস থাকবেন না, জানা গিয়েছিল আগেই। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য তাই রঙ্গনা হেরাথের হাতেই নেতৃত্ব তুলে দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। স্কোয়াডের বাকি সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে, তবে একটু অদ্ভুতভাবে।

প্রথমে শুধু জানানো হলো, দলে আসছেন বাঁহাতি স্পিনার মালিন্দা পুষ্পকুমারা। পরে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষনা দেওয়া হয় ১৫ সদস্যের দল। এখনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলা পুষ্পকুমারাসহ দলে আছেন চার স্পিনার। বাকি ১১ জনের মধ্যে চারজন ফাস্ট বোলার।

২৯ বছর বয়সী পুষ্পকুমারার ঘূর্ণিজাদুতেই ইংল্যান্ড লায়নসকে দ্বিতীয় বেসরকারি টেস্টে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দল। এই ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেট নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন পুষ্পকুমারা। এর আগে প্রথম বেসরকারি টেস্টেও দুই ইনিংসে ৪টি করে উইকেট পেয়েছিলেন ৯৯টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলা স্পিনার।

গত কিছুদিন সীমিত ওভারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভালো খেলার পুরস্কার পেয়ে টেস্ট দলে ফিরেছেন আসেলা গুনারতেœ ও নিরোশান ডিকভেলা। ২৩ বছর বয়সী ডিকভেলা তাঁর চার টেস্টের সর্বশেষটি খেলেছেন ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে। গুনারতেœ গত অক্টোবর-নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেললেও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে ম্যাথুসকে জায়গা দিতে বাদ পড়েন। এবারও ম্যাথুসের অনুপস্থিতিতেই ডাক পেলেন।