রাইজিং স্টার ২০১৭

রাইজিং স্টার ২০১৭

SHARE
Rising-Star

গত বছর অভিনয় ও সংগীতে দক্ষতা দেখিয়ে এক ঝাক নতুন তরুণ-তরুণী আমাদের শোবিজে জায়গা করে নিয়েছেন। এরা হলেন, এলেন শুভ্র, মনোজ সেন, তানজিন তিশা, সিয়াম, তৌসিফ, সালমান মুক্তাদির, সাফা কবীর, তাসকিন, শাহীন খান, অনন্যা ইয়াসমিন অংকন, আয়েশা জেবিন দিপা, কাজী নওরীন, স্মরণ, নদী, ঐশীসহ অনেকে। আমাদের বিশ্বাস উল্লেখিত তরুণ তারকা শিল্পীরাই আগামীতে আমাদের শোবিজে নেতৃত্ব দিবেন।

আলোচিত মনোজ

monoj-2২০০৮ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করে ঢাকায় আসেন মনোজ। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় থিসিসের একটা সূত্র ধরে নির্মাতা অমিতাভ রেজার সঙ্গে একবার পরিচয় হয়েছিল। সেই পরিচয়টাই কাজে লাগান ঢাকায় এসে। ‘ইন্টারভিউ’ দিয়ে তাঁর সহকারী হিসেবে কাজ করার সুযোগ পান। এটাই আসলে মিডিয়া ও ঢাকা শহরের সঙ্গে ‘পরিচয়’পর্ব তাঁর। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় ২০০৬ সালের দিকে রাজিবুল হোসেনের ‘বালু ঘড়ি’ নামে একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ২০১০ সালে গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেন। তবে মনোজের দাবি, তাঁকে বেশি মানুষ চিনেছেন ২০১৪ সালে প্রচারিত ক্লোজআপ কাছে আসার গল্পের একটা বিজ্ঞাপনে। গেল দুই ঈদে যথাক্রমে, ফুল ফোটানোর খেলা ও কথা হবে তো- নাটক দুটি দিয়ে মনোজ মিডিয়ায় বেশ আলোচনায় আসেন।

ব্যস্ততায় সিয়াম

siyam২০১২ সালে শোবিজে সিয়ামের যাত্রা শুরু হয়। সিটিসেলের একটি বিজ্ঞাপন দিয়ে তার পথচলা। এরপর একে একে নাটক-টেলিফিল্ম এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেন তিনি। ধারাবাহিক নাটকেও সিয়ামের উপস্থিতি ছিল। ‘নাইন এন্ড এ হাফ’, সুপারস্টারসহ বেশকিছু ধারাবাহিকে তিনি অভিনয় করেন। গত দুই ঈদে সিয়ামের অভিনীত বেশ কয়েকটি নাটক দর্শকদের নজর কাড়ে। বর্তমানে সিয়াম ‘পোড়ামন-২’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছেন। বাবা মায়ের একমাত্র ছেলে সিয়াম ২০১০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিসাব বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হন। কিন্তু পরের বছর ভর্তি হন একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে তিনি আইন বিষয়ে ¯œাতক সম্পন্ন করে। কিছুদিন আগে যুক্তরাজ্য থেকে বার অ্যাট ল পড়ে আসেন তিনি।

ব্যতিক্রমী চরিত্রে এলেন শুভ্র!

Alen-Shuvroএকটু ব্যতিক্রমধর্মী চরিত্রে অভিনয় করার জন্য এলেন শুভ্রর বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যেই এলেন মিডিয়ায় বেশ সুনাম অর্জন করেন। তাঁর প্রথম টিভি নাটক ছিল অমিতাভ রেজা পরিচালিত ‘ইচ্ছে হলো’ এরপর একে একে প্রায় ১০০টিরও বেশি নাটকে তাকে দেখা গেছে তাকে। গত রোজার ঈদে ‘বিকেল বেলার পাখি’ নাটকে অভিনেতা ফজলুর রহমানের ছেলের চরিত্রে অভিনয় করে শুভ্র বেশ প্রশংসা পান। শুভ্র নটর ডেম কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে এমবিএও করেছেন। বড় পর্দাতেও এলেন শুভ্র অভিনয় করেছেন। অনিমেষ আইচ পরিচালিত ‘ভয়ঙ্কর সুন্দর’ ছবিতে একজন বোবা ছেলের চরিত্রে অভিনয় করেন। এছাড়াও গত বছর এলেন শুভ্র বেশ কয়েকটি নাটকে গুরুত্বপুর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

এই সেই শাহতাজ!

shahtaj_moniraবাংলালিংকের কলড্রপের একটি বিজ্ঞাপনচিত্রের মডেল হিসেবে কাজ করে আলোচনায় আসেন শাহতাজ। এরই ধারাবাহিকতায় একাধিক বিজ্ঞাপনচিত্রে দেখা মেলে তার। অবশ্য গেল বছর তৌসিফের কথায় ‘উড়ে যাই’ শিরোনামে একটি গানের মাধ্যমে সংগীতশিল্পীর খাতায়ও নাম লেখান শাহতাজ। শাজতাজের ক্যারিয়ারের শুরুটা হয় মডেলিংয়ের মধ্য দিয়ে। এর কিছুদিন পর দেখা যায় টিভি নাটকের পর্দায়। এখানেই শেষ নয়। সংগীতশিল্পীর খাতায়ও তিনি নাম লেখান। মডেল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেও এখন গানে ও অভিনয়ে নিয়মিত কাজ করছেন তিনি। এদিকে গেল বছর সংগীতশিল্পী ধ্রæব গুহর একটি গানের মডেল হিসেবে কাজ করেছেন শাহতাজ। সেই ধারাবাহিকতায় এবার প্রীতমের ‘যাদুকর’ নামের একটি গানের ভিডিওতে মডেল হয়েছেন তিনি। গান, মিউজিক ভিডিওর পাশাপাশি বিজ্ঞাপনচিত্রের কাজও নিয়মিত করছেন শাহতাজ। বর্তমানে শাহতাজ ব্যস্ত আছেন চ্যানেল আইতে প্রচার চলতি ধারাবাহিক হিংটিংছট এর শুটিংসহ আরো কিছু কাজ নিয়ে।

ভালো অভিনেতা হতে চান তৌসিফ

Tousif-(1)‘অভিনয়ে আমি একেবারেই নতুন। শিখতে শিখতে এগোচ্ছি। অনেক বই পড়ছি, ছবি দেখছি। বড় বড় অভিনেতার কাছ থেকে শেখার চেষ্টা করছি। নিজেকে প্রস্তুত না করলে এখান থেকে ছিটকে পড়ার আশঙ্কা অনেক বেশি।’ বললেন তৌসিফ মাহবুব। ফেসবুক ও ইতিকথা, যাযাবর, নিউ রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট, কালো মেকাপ, একটি অসমাপ্ত কবিতার গল্প, ফর গিভ মি, তুমি মেয়েসহ অনেকগুলো নাটকে কাজ করেছেন তিনি। নাটকে অভিনয়ের প্রথম সুযোগ হলো কীভাবে? তৌসিফ জানান, চাকরির পাশাপাশি আদনান আল রাজীবের কিছু বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেছেন। ২০১৩ সালের ভালোবাসা দিবসের জন্য একই পরিচালকের অল টাইম দৌড়ের উপর নাটকে অভিনয়ের সুযোগ পান। এরপর মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের প্যানাল্টি, আশফাক নিপুণের ল্যান্ডফোনের দিনগুলোতে প্রেম, মাবরুর রশীদ বান্নার ইট ক্যান হেপেন, মিনার ও অতঃপর আমরা নাটকে কাজ করেন তৌসিফ। এই নাটকগুলো তাঁর যাত্রা শুরুর পথে ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে। তৌসিফের বাবার স্বপ্ন ছিল ছেলে বড় হয়ে প্রকৌশলী হবেন। বাবার স্বপ্ন পূরণ করেছেন তৌসিফ। আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেছেন তিনি। তৌসিফের ভাষায়, ‘প্রকৌশলী শব্দটি এখন কাগজের মধ্যেই সীমাবদ্ধ।’ তৌসিফের সব স্বপ্ন ছোট পর্দাকে ঘিরে। একজন ভালো অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন তাঁর।

এগিয়ে যাচ্ছে সাফা

Safa Kabirমিডিয়ায় সাফা কবিরের সম্ভাবনা বেশ ভালো। ‘প্রাণ পিনাট বার’-এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করে মূলত আলোচনায় আসেন তিনি। এই বিজ্ঞাপনের ‘ফেসবুকিং পারে না’ সংলাপটি সাফা কবিরের কণ্ঠে বেশ জনপ্রিয়তা পায়। তবে সাফা কবির প্রথম বিজ্ঞাপনে মডেল হন আশফাক বিপুলের পরিচালনায় এয়ারটেলের বিজ্ঞাপনে। অমিতাভ রেজার নির্দেশনায় ‘প্যারাসুট’-এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেও সাফা শোবিজ মিডিয়ায় আলোচনায় আসেন। মিডিয়াতে সাফা কবিরের আগমন বিজ্ঞাপন নির্মিতা আদনান আল রাজীবের হাত ধরে। তারই নির্দেশনায় সাফা প্রথম অভিনয় করেন ‘এট এইটিন অলটাইম দৌঁড়ের উপর ’ নাটকে। এরপর তিনি আতিক জামান পরিচালিত ‘একা মেয়ে ’ নাটকে অভিনয় করেন। দুটি নাটকেই তার অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছিল। এরপর সাফা কবির আরো অনেকগুলো নাটকে অভিনয় করেছেন। বর্তমানে সাফা বিজ্ঞাপন ও নাটকে অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত আছেন।

এই সময়ে তানজিন তিশা

মিউজিক ভিডিওতেও তিশার রয়েছে বেশ জনপ্রিয়তা। ইমরান, হাবিবসহ বেশ কয়েকজন নামিদামি সংগীত শিল্পীর গানে তিনি মডেল হন। ছোটবেলায় তানজিন তিশা নাচ শিখেছেন। তবে পরবর্তীতে নাচের দিকে তিনি আর যাননি। সিদ্ধেশ্বরী গার্ল হাইস্কুল ও কলেজ থেকে তিনি এইচএসসি সম্পন্ন করেন। ফ্যাশন শুট ও র‌্যাম্প মডেলিংয়ের মাধ্যমে তানজিন তিশার মিডিয়ায় যাত্রা শুরু। বিজ্ঞাপন, টিভি নাটক, টেলিফিল্মসহ প্রায় সব মাধ্যমে কাজ করছেন তিনি। জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী হাবিব ওয়াহিদের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে মিডিয়ায় বেশ সমালোচিত হন তিশা। তবে কাজের জায়গাতেও রয়েছে তিশার বেশ জনপ্রিয়তা। সমানতালে মিডিয়ার নানান মাধ্যমে কাজ করছেন এই গ্ল্যামার কন্যা।

ঢাকা অ্যাটাক’ দিয়েই আলোচিত তাসকিন

taskin-3সিনেমায় খল চরিত্রে অভিনয় করে একজন অভিনেতা যে সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকতে পারেন, তার উদাহরণ তাসকিন রহমান। গত ৬ অক্টোবর বাংলাদেশের শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়া ‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমার নীল চোখের এই অভিনয়শিল্পী এখন অনেকেরই আলোচনার বিষয়। সিনেমা দেখা শেষে প্রেক্ষাগৃহে থেকে বেরিয়ে দর্শকদের মধ্য থেকে অনেকেই বলেছেন, ‘এ তো ভিলেন নয়, নায়ক!’ ‘ঢাকা অ্যাটাক’ সিনেমা মধ্যাহ্ন বিরতির পর থেকে শেষ দৃশ্য পর্যন্ত পর্দাজুড়ে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তাসকিন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তাকে নিয়ে চলে আলোচনা। ২০০২ সাল থেকে সিডনিতে থাকে তাসকিন। কিছু গবেষণার কাজ করেন তিনি।