বাস্তবমুখী চরিত্রে কাজ করতে ভালো লাগে:অর্ষা

বাস্তবমুখী চরিত্রে কাজ করতে ভালো লাগে:অর্ষা

1435
SHARE
ORSHA-2

আসন্ন ঈদের বেশকিছু নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছেন লাক্স-চ্যানেল আই তারকা অর্ষা। এছাড়াও প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে তাকে। অভিনয় ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন অর্ষা-

আনন্দ আলো: ব্যস্ততা কী খবর?

অর্ষা: মাঝে স্কলারশিপ নিয়ে দেশের বাইরে ছিলাম বেশ কয়েক মাস। ফিরেই গত ঈদের কয়েকটি নাটকের কাজ করেছি। এরমধ্যে অন্যতম নাটক ছিলো চ্যানেল আই-এর ‘ছোটকাকু’।

আনন্দ আলো: নতুন কাজের কী অবস্থা?

অর্ষা: কোরবানির ঈদের জন্য কয়েকটি নাটকের কাজ করেছি। এগুলোর মধ্যে উলে­খযোগ্য হলো সকাল আহমেদের ‘পাতালপুরীর গল্প’, শিখর শাহরিয়ারের ‘মেখে দিলাম ভালোবাসা’, সায়েম সমাহারের ‘ট্রায়াঙ্গল লাভস্টোরি’। এ ছাড়া বিশিষ্ট শিশুসাহিত্যিক ফরিদুর রেজা সাগরের গল্প নিয়ে জনপ্রিয় নির্মাতা আফজাল হোসেনের পরিচালনায় ঈদ ধারাবাহিক ‘ছোটকাকু’র কাজ করবো। এখন নাটকটির চিত্রনাট্যের কাজ চলছে। কিছুদিন পর এর দৃশ্যধারণ শুরু হবে। এছাড়াও কয়েকদিন আগে মেজবাহ্ শিকদারের রচনা ও পরিচালনায় ‘অন্তহীন অপেক্ষা’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয় করেছি। এতে আমার বিপরীতে ছিলেন অপূর্ব।

আনন্দ আলো: আপনার অভিনীত চ্যানেল আইতে ‘শূণ্য জীবন’ ধারাবাহিকটি প্রচার হচ্ছে…

অর্ষা: সত্যি বলতে কি- নানা ব্যস্ততায় নিয়ম করে নাটকটি দেখা হয়ে ওঠে না। সুযোগ পেলে দেখার চেষ্টা করি। বিশিষ্ট নারী উদ্যোক্তা কণা রেজার গল্প নিয়ে নাটকটি বেশ সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন পরিচালক মেহেদী বিন আশরাফ। এটি নিয়েও বেশ সাড়া পাচ্ছি।

আনন্দ আলো: অন্য কোনো ধারাবাহিকের কাজ করছেন?

অর্ষা: হ্যাঁ। ‘শূন্য জীবন’ ছাড়া রয়েছে সকাল আহমেদের ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস চৌধুরী’ ও ‘ফুলমহল রাজবাড়ী’ ধারাবাহিক দুটিতে অভিনয় করছি।

আনন্দ আলো: নিজেকে কোন ধরনের চরিত্রে বেশি দেখতে ভালো লাগে?

অর্ষা: বৈচিত্র্যপূর্ণ চরিত্র আমাকে বেশি টানে। বাস্তবমুখী চরিত্রে কাজ করতে ভালো লাগে। সে কারণে চেষ্টা থাকে ভালো কাজের।