Home প্রতিবেদন ফিরোজা বেগম স্বর্ণপদক পেলেন সাবিনা ইয়াসমীন

ফিরোজা বেগম স্বর্ণপদক পেলেন সাবিনা ইয়াসমীন

SHARE

শিল্পীরা সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে গাইলেন ‘মোরা ঝঞ্চার মতো উদ্দাম’, ‘আমরা চঞ্চল’ ও ‘আমার দেশের মাটি’ গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করলেন নৃত্যশিল্পীরা। ফিরোজা বেগম স্বর্ণপদক প্রদান অনুষ্ঠানের শুরু হয় এভাবেই। ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক ট্রাষ্ট ফান্ডের অর্থায়নে সম্প্রতি এ পদক প্রদান করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। প্রথমবারের মতো এই পদক পেয়েছেন বরেণ্য শিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন। ২০১৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের প্রথম স্থান অধিকারী পার্থ প্রতিম মিত্রকেও সেই সঙ্গে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। প্রতিবারে একজন ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক ও সঙ্গীত বিভাগের প্রথম স্থান অধিকারী শিক্ষার্থী এই স্বর্ণপদক লাভ করবেন। এছাড়াও সঙ্গীত বিভাগের তৃতীয় বর্ষের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী নজরুল ইসলাম মাসুদ খানকে বিশেষ একটি বৃত্তি প্রদান করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে ২৮ জুলাই আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে পদক তুলে দেয়া হয়। সাবিনা ইয়াসমীনকে স্বর্ণপদক ও দুই লাখ টাকা এবং পার্থ প্রতীম মিত্রকে স্বর্ণপদক ও ২০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক তাদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডীন বেগম আকতার কামাল ও উপমহাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। সভাপতি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমদ। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ট্রাষ্ট ফান্ডের দাতা ও ফিরোজা বেগমের ভাই এম আনিস উদ দৌলা এবং সঙ্গীত বিভাগের প্রধান ড. মহসিনা আক্তার খানম (লীনা তাপসী খান)। পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ফিরোজা বেগমের দুই ছেলে হামিন আহমেদ ও শাফিন আহমেদ।

সাবিনা ইয়াসমীন পদক প্রাপ্তির অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ফিরোজা বেগম এমন এক শিল্পী, যিনিই একবার তার গান শুনেছেন তিনিই মুগ্ধ হয়েছেন। আমিও তার ভক্ত ছিলাম। তার মাপের শিল্পী যুগে যুগে আসেন না।

উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, ফিরোজা বেগমের স্মৃতি এদেশের মানুষের হৃদয়ে অমলিন রয়েছে। তিনি বাংলাদেশের সঙ্গীতকে বহুদূর এগিয়ে নিয়েছেন। যিনি তার নামাঙ্কিত পদক পেলেন সেই সাবিনা ইয়াসমীন ও তার উত্তরসূরি হিসেবে দেশের সঙ্গীতকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। ফিরোজা বেগমের পুত্র কণ্ঠশিল্পী শাফিন আহমেদ বলেন, এই পদক প্রদানের মাধ্যমে একটি বড় কাজের সূচনা হল। আগামী দিনে এমন কাজ করতে চাই যা মানুষকে ফিরোজা বেগমের গান ও কর্ম মনে করিয়ে দেবে। হামিন আহমেদ বলেন, ফিরোজা বেগম সঙ্গীত সাধনায় নজরুল সঙ্গীতকে যে মর্যাদার স্থানে নিয়ে গেছেন তাঁর সেই আদর্শ নিয়ে পথ চললে নবীন শিল্পীরাও তাঁর মতো সাফল্যের পথ খুঁজে পাবেন।

পদক প্রদান শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত ও নৃত্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ছিল সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।