প্রাচীর নাটকে মৌটুসী

প্রাচীর নাটকে মৌটুসী

1733
SHARE
Moutoshi

অভিনেত্রী ও পরিচালক রোকেয়া প্রাচীর নির্দেশনায় এবারই প্রথম অভিনয় করছেন ছোটপর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাস। রোকেয়া প্রাচীর রচনা ও নির্দেশনায় ‘রুবিনা আমেনা ফুলকি’ টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন মৌটুসী বিশ্বাস। সম্প্রতি রাজধানীর ইস্কাটনে একটি বাড়িতে টেলিফিল্মটির দৃশ্য ধারণের কাজ করা হয়। এতে গৃহকর্ত্রী রুবিনা চরিত্রে অভিনয় করেছেন রোকেয়া প্রাচী। আর কাজের বুয়া আমেনা চরিত্রে রূপদান করেছেন মৌটুসী বিশ্বাস। ফুলকি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নবাগত শিউলী। টেলিছবির আমেনার অত্যাচারী স্বামী চরিত্রে অভিনয় করেছেন লুৎফর রহমান জর্জ। রোকেয়া প্রাচী বলেন, ‘এতে বশির চরিত্রে অভিনয় করেছেন জর্জ ভাই। বশির খুব গোবেচারা টাইপের একজন মানুষ। কিন্তু সত্যিকার অর্থে এই শহরের নানান স্থানে স্মাগলিংয়ের সঙ্গে জড়িত। তার স্ত্রীও জানে না। কিন্তু এক সময় বশির ধরা পড়ে। আমেনা চরিত্রের জন্য মৌটুসীই যথার্থ।’ মৌটুসী বিশ্বাস বলেন, ‘প্রাচী আপার সঙ্গে এটা আমার প্রথম কাজ। প্রাচী আপা এমনই একজন পরিচালক যিনি জেনে-বুঝে কাজ করেন। আমি চরিত্রটি যথাযথভাবে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি।’

দর্শকের কথাও ভাবতে হবে -নিলয়

দর্শকপ্রিয় অভিনেতা নিলয়। বর্তমানে বিভিন্ন চ্যানেলে তার অভিনীত একাধিক ধারাবাহিক প্রচার হচ্ছে। অভিনয় ও সমসাময়িক নানা বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি-

আনন্দ আলো: বর্তমানের ব্যস্ততা…

Niloyনিলয়: অভিনয় নিয়ে এখন আমার সব ব্যস্ততা। কিছুদিন আগে ‘প্রেম অথবা অপ্রেমের’ গল্প নামে একটি খন্ড নাটকের কাজ করি। এটি পরিচালনা করেছে জামাল মল্লিক। এছাড়াও বিভিন্ন চ্যানেলে আমার অভিনীত বেশকিছু ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। সালাউদ্দিন লাভলু পরিচালিত ‘সোনার পাখি রুপার পাখি’ ধারাবাহিকটি চ্যানেল আইয়ে প্রচার হচ্ছে। এটিএন বাংলায় কায়সার আহমেদ পরিচালিত ‘রূপালী প্রান্তর’ ও বাংলাভিশনে ‘থ্রি সিস্টার’ধারাবাহিকটি প্রচার চলছে। এদিকে, অচিরেই ‘মহাগুরু’ শীর্ষক একটি ধারাবাহিকের কাজ শুরু করব। এটি পরিচালনা করবেন কায়সার আহমেদ।

আনন্দ আলো: দেশি চ্যানেলে বিদেশি সিরিয়াল সম্পর্কে আপনার মতামত কী?

নিলয়: সারাবিশ্ব এখন মানুষের হাতের মুঠোয়। তাই দর্শক এখন ইচ্ছা করলেই ইন্টারনেটে কিংবা স্যাটেলাইটের মাধ্যমে দেশের বাইরের চ্যানেল দেখতে পারেন। সে ক্ষেত্রে বিদেশি সিরিয়াল দেশের চ্যানেলগুলোতে প্রচারের কোনো প্রয়োজন নেই। আমি এটার সম্পূর্ণ বিপক্ষে। এক দিকে দেশীয় নাটক থেকে দর্শক মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। তার ওপর আবার বিদেশি সিরিজের প্রতি দর্শকদের আকৃষ্ট করা হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে দেশীয় নাটক ধ্বংস হয়ে যাবে। তবে আমাদের দর্শকদেরকেও ভালো মানের অনুষ্ঠান উপহার দেয়ার বিষয়ে সচেষ্ট থাকতে হবে।

আনন্দ আলো: সংসার জীবন কেমন যাচ্ছে?

নিলয়: অসাধারণ। দু’জনে কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও নিজেদের জন্য ঠিকই সময় বের করে নেই। অনেক সময় একই নাটকে আমরা দু’জনও অভিনয় করি। তখন দেখা যায় নিজেদের প্রয়োজনীয় কথাটাও সেরে নেয়া যায়।

আনন্দ আলো: টিভি দেখা হয়?

নিলয়: সময় পেলেই টিভি দেখি। নিজের কাজ দেখার পাশাপাশি অন্যের কাজও দেখি। অন্যের কাজ দেখলে অনেককিছু শেখা যায়।

বৈশাখীতে তিন ধারাবাহিক

নতুন তিনটি ধারাবাহিক নিয়ে এসেছে বৈশাখী টেলিভিশন। নাটক তিনটি হচ্ছে- কমেডি ৪২০, চাপাবাজ এবং লেডি গোয়েন্দা। টিপু আলমের মূল ভাবনায় কমেডি ৪২০ নাটকটি লিখেছেন আকাশ রঞ্জন, পরিচালনা করেছেন ফরিদুল হাসান। নাটকটিতে অভিনয় করেছেন -আমিরুল হক চৌধুরী, আ খ ম হাসান, মীর সাব্বির, আলভী, অহনা, হুমায়রা হিমু, সিদ্দীকুর রহমান, চিত্রলেখা গুহ, মুনিরা মিঠু, কচি খন্দকার, তারিক স্বপন, ম ম মোর্শেদ প্রমুখ। প্রচার হচ্ছে শনি থেকে সোম রাত ৮.৪০ মিনিটে। চাপাবাজ নাটকটি রচনা ও পরিচালনা Comdy-420করেছেন হাসান জাহাঙ্গীর। অভিনয় করেছেন এটিএম শামসুজ্জামান, চিত্র নায়িকা সুজাতা, ড. এনামুল হক, ফেরদৌসি লিনা ও শবনম পারভিন। প্রচার হচ্ছে শনি থেকে সোম রাত ৯.২০ মিনিটে। লেডি গোয়েন্দা নাটকটি লিখেছেন ফজলুল করিম ও মম রুবেল, ডিএ তায়েবের পরিচালনায় নাটকটির পর্ব পরিচালক হিসেবে আছেন চন্দন চৌধুরী ও জিএম সৈকত। অভিনয় করেছেন নমিরা, চৈতি, হুমায়রা হিমু, ফারজানা চুমকি, কে এস ফিরুজ, শাহানা সুমি, শাহেদ শরীফ খান, ওবিদ রেহান, শাহিন খান, আমানুল হক হেলাল, আহসানুল হক মিনু, দিলু মজুমদার প্রমুখ। প্রচার হচ্ছে প্রতি মঙ্গল থেকে বুধবার রাত ৮.৪০ মিনিটে।

ধারাবাহিক তিনটি প্রচার উপলক্ষে চ্যানেলটির পক্ষ থেকে এক প্রীতি সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। বৈশাখী টেলিভিশনের অনুষ্ঠান বিভাগের উপ-প্রধান অভিনেতা জাহিদ হোসেন শোভনের সঞ্চালনায় প্রীতি সন্ধ্যায় বৈশাখী টেলিভিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, নাটকটির কলাকুশলীসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। প্রীতি সন্ধ্যায় বৈশাখী টেলিভিশনের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক টিপু আলম বলেন, বৈশাখী টেলিভিশন সবসময়-ই দেশীয় সংস্কৃতিকে গুরুত্ব দিয়ে অনুষ্ঠানমালা সাজানোর চেষ্টা করে। আমাদের নাটক, অনুষ্ঠানমালা সবকিছুতেই তার ছাপ পাওয়া যায়। আমরা আশা করছি বর্তমান বাস্তবতার নিরিখে নির্মিত নাটক তিনটি দর্শকের ভালো লাগবে।