পুরস্কার পাবো শুনে ভালো লাগছে

পুরস্কার পাবো শুনে ভালো লাগছে

629
SHARE

টিভি নাটক, মঞ্চনাটক দু’জায়গাতেই সমানতালে অভিনয় করছেন জনপ্রিয় অভিনেতা তারিক আনাম খান। চলচ্চিত্রেও অভিনয় করছেন তিনি। অভিনয় এবং সমসাময়িক বিষয় নিয়ে কথা হলো তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: ২০১৪ সালের ‘দেশা-দ্য লিডার’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন কেমন লাগছে?

তারিক আনাম খান: আমার কাছে মনে হয় শিল্প, বিনোদন ও শিক্ষা একসঙ্গে চলতে হবে। একটাকে বাদ দিয়ে আরেকটা চলতে পারে না। একটা চলচ্চিত্র বিনোদনধর্মী যেমন হতে হবে, তেমনি হতে হবে শিক্ষামূলক। সেদিক থেকে ভাবলে দেশা-দ্য লিডার এ দুটি বিষয় রয়েছে। আমার অভিনয় করে ভালো লেগেছে। পুরস্কার পেয়ে আরও ভালো লাগছে।

আনন্দ আলো: বেশ কয়েক বছর পর মহিলা সমিতি মঞ্চ সংস্কার করে আবার নতুন করে চালু হলো। মঞ্চের অভিনেতা হিসেবে এটা নিশ্চয় আপনাদের জন্য আনন্দের?

তারিক আনাম খান: অবশ্যই আনন্দের। কিন্তু সমস্যা একটা আছে। নতুন করে মিলনায়তনটির যে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে তা ঢাকার দলগুলোর জন্য বহন করা কঠিন। নাটক মঞ্চায়ন করে আর কতটাকা ওঠে। ছুটির দিন ছাড়া ভাড়া ওঠানোই কঠিন হয়ে যাবে আমাদের জন্য।

আনন্দ আলো: বছর তিনেক আগে বাংলাদেশে হলিউডের ছবি অ্যাভেঞ্জার্স: দ্য এজ অব আল্ট্রন এর শুটিং হয়েছিল। সেই শুটিংয়ের বাংলাদেশ অংশের মূলদায়িত্বে ছিলেন আপনি। বাংলাদেশে এ রকম আনত্মর্জাতিক মানের চলচ্চিত্রে শুটিং হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু।

তারিক আনাম খান: সম্ভাবনা অনেক। তবে সরকারের কিছু সহযোগিতা লাগবে। অনুমতি পাওয়ার জন্য বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়। এর মধ্যে কিছু জায়গা যেমন বান্দরবন, খাগড়াছড়িতে শুটিং করার অনুমতিই মেলেনা। একই সঙ্গে নিরাপত্তার ব্যাপারটিও আছে। এসব দিক থেকে একটু সহজ হলেই এদেশে আনত্মর্জাতিক চলচ্চিত্রের শুটিং হতে পারে।

রাবেয়া খাতুনের মুক্তিযুদ্ধের নাটক মধ্যরাতের সাত মাইল

Rahat-Khan-(2)মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রচার হবে বিশেষ নাটক ‘মধ্যরাতের সাতমাইল’। কথা সাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের গল্পের নাট্যরূপ দিয়েছেন ফজলুল করিম। পরিচালনা করেছেন আবুল হায়াত। অভিনয়ে তৌকীর আহমেদ, জেনি, রজত, নাজমুল হুদা বাচ্চু, শফিক খান দিলু প্রমুখ। নাটকটি চ্যানেল আইতে প্রচার হবে ২৬ মার্চ রাত ৭.৫০ মিনিটে। এছাড়া চ্যানেল আই ম্যাসব্যাপি প্রচার করবে মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র টেলিফিল্ম, টকশো, গানের অনুষ্ঠান এবং মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণমূলক অনুষ্ঠান।

বন্যা মির্জার সুরগাঁও

Bonna-Mirzaটিভি নাটকে এখন কমই দেখা যাচ্ছে বন্যা মির্জাকে। কারণ মঞ্চে সময় দিচ্ছেন এই অভিনেত্রী। দেশ নাটকের ‘দর্পণে শরৎশশী’র মঞ্চায়ন তো করছেনই প্রায় চার মাস ধরে অংশ নিচ্ছেন নতুন মাইক ‘সুরগাঁও’র মহড়ায়। মাসুম রেজার রচনায় এটির নির্দেশনা দিচ্ছেন নাসির উদ্দিন শেখ। এ প্রসঙ্গে বন্যা বলেন, নাটকটি এখন মঞ্চায়নের জন্য প্রসত্মত। আশা করছি এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই উদ্বোধনী শো করতে পারব। দলের সবাই বেশ পরিশ্রম করছি মহড়ায়। জাদু বাসত্মবতার গল্প। এখানে আমার চরিত্রের ওষ্ঠকালা। মঞ্চে সময় দেয়ার পাশাপাশি একটি অনলাইন পত্রিকার ব্র্যান্ড কনসালট্যান্টের চাকরিও করছেন তিনি। আছে ঘর সংসারের ব্যসত্মতাও। সব মিলিয়ে টিভি নাটকের জন্য সময় বের করা কঠিন হয়ে পড়েছে এই অভিনেত্রী।