Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড নাটক-চলচ্চিত্র নিয়ে প্রাণ রায়!

নাটক-চলচ্চিত্র নিয়ে প্রাণ রায়!

SHARE
pran-ray

টিভি পর্দার অভিনেতা প্রাণ রায়। একাধিক চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি। অভিনয় ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: নতুন কী কাজ করছেন?

প্রাণ রায়: অনুদানের একটি চলচ্চিত্রে শুটিং করছি। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নির্মাতা পথিক মাসুদের পরিচালনায় ‘মায়া’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করছি। এ ছবিতে আমার নায়িকা জ্যোতিকা জ্যোতি। ছবির গল্পটি অন্যরকম। আমার অভিনীত আগের ছবিগুলোর মতো নয়। বীরাঙ্গনা এবং যুদ্ধশিশুদের নিয়ে ‘মায়া’ ছবির পটভূমি গড়ে উঠেছে। বাংলাদেশের খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদের চিত্রকর্ম ‘নারী’ এবং কবি কামাল চৌধুরীর ‘যুদ্ধশিশু’ কবিতা অবলম্বনে চলচ্চিত্রটি নির্মিত হচ্ছে।

আনন্দ আলো: আগের যত চলচ্চিত্র…

প্রাণ রায়: এর আগে ছয়-সাতটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছি। এর মধ্যে হুমায়ূন আহমেদের ‘ঘেঁটুপুত্র কমলা’, শাহনেওয়াজ কাকলীর ‘নদীজন’, সালাহ উদ্দিন লাভলুর  ‘মোল্লা বাড়ির বউ’,  ‘জীবন ঢুলি’, ‘নয়ছয়’, ‘এইতো  প্রেম’ ছাড়াও আরও দুটি চলচ্চিত্র মুক্তির অপেক্ষায় আছে। একটি আশরাফ শিশিরের ‘আমরা একটা সিনেমা বানাব’ অন্যটি ‘রং ঢং’। আশা করছি ছবি দুটি এ বছরই মুক্তি পাবে।

আনন্দ আলো: নাটকের কী খবর?

প্রাণ রায়: সকাল আহমেদের পরিচালনায় ‘ভদ্রপাড়া’ নামে নতুন একটি ধারাবাহিকে কাজ করছি। এছাড়া ‘টি টুয়েন্টি’ নামে আরেকটি ধারাবাহিকের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এটি সম্ভবত আরটিভিতে প্রচার হবে। ‘মায়া’ সিনেমার কারণে আপাতত নতুন কোনো ধারাবাহিকে কাজ করছি না। বিভিন্ন চ্যানেলে আমার কয়েকটি ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। এরমধ্যে রয়েছে এটিএন বাংলায় ‘ভলিউম কমান’, আরটিভিতে ‘নিউটনের তৃতীয় সূত্র’ ও ‘মজনু একজন পাগল নহে’।

আনন্দ আলো: রং তুলি…

প্রাণ রায়: রং তুলি আমাকে খুব টানে। অভিনয়ের ব্যস্ততায় ছবি আঁকার সময় হয়ে ওঠে না। তারপরেও চেষ্টা করি। আসলে ছবি আঁকাতো মুডের ব্যাপার, বললেই হয় না। তবে গত বছর আমার ব্যাচের বন্ধুরা মিলে প্রদর্শনী করেছিলাম।

নাটকে হাবিবের গান!

টিভি নাটকেও এবার শোনা যাচ্ছে হাবিবের কণ্ঠ-সুরের গান। আর এটি তিনি তৈরি করেছেন ‘মেঘে ঢাকা শহর’ নামের একটি ধারাবাহিকের জন্য। নাটকটি সম্প্রতি এটিএন বাংলায় প্রচার শুরু হয়েছে। রুদ্র মাহফুজের রচনা ও সাখাওয়াৎ মানিকের পরিচালনায় নাটকটির এই সূচনা সংগীতে হাবিবের সঙ্গে কণ্ঠ দিয়েছেন নির্ঝর। ২০১৫ সালে গানটির রেকর্ডিং হয়েছিল! ‘কেউ বোনে আড়ালে মুখোশের ঘর/ জোছনা আঁধারে মেঘে ঢাকা শহর’- এমন কথা নিয়ে সাজানো গানটি লিখেছেন জাহিদ আকবর। গানটি সম্পর্কে হাবিবের মন্তব্য ‘নাটকের গল্পে সমসাময়িক বিষয়গুলো আছে। তার ওপর ভিত্তি করেই গানটি করা। যদিও সেটি তিন বছর আগের ঘটনা।’ নাটকে অভিনয় করেছেন একঝাঁক তারকা। আছেন আবুল হায়াত, ডলি জহুর, শম্পা রেজা, ড. ইনামুল হক, লুৎফর রহমান জর্জ, আহসান হাবিব নাসিম, অপূর্ব, নাঈম, আজমেরী হক বাঁধন, ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর, নাদিয়া, ডা. এজাজ, সাজু খাদেম, সামিয়া, মৌরি সেলিম, তিথি কবির, জনি, রমিজ রাজু, তানভীরসহ অনেকে।

৫০ এ ‘কাগজের ফুল’

kagojer-fulএনটিভিতে প্রচারিতব্য ধারাবাহিক নাটক ‘কাগজের ফুল’ ৫০তম পর্ব অতিক্রম করেছে। নাটকটি প্রতি সপ্তাহের বুধবার ও বৃহস্পতিবার প্রচার হচ্ছে। মারুফ রেহমানের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল। অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, লুৎফর রহমান জর্জ, সাবেরী আলম, এফ এস নাঈম, সোহানা সাবা, শিল্পী সরকার অপু, সাজু খাদেম, নাদিয়া মীম, রাশেদ মামুন অপু, শেলী আহসান, জয়রাজ, নরেশ ভুঁইয়া, হিমে হাফিজ, হাসিমুন্নেসা, আশরাফুল আশীষ, আশিক চৌধুরী প্রমুখ। গল্পে দেখা যাচ্ছে- শফিকের বাবা ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা। যুদ্ধ পরবর্তী নানা ঘটনার কারণে তিনি নিজেকে সবার থেকে আড়াল করে রাখেন। কারো সাথেই জাতি নিয়ে কথা বলতে চাইতেন না। শফিকের পনের বছর বয়সে তিনি মারা যান। মা আর ছোট ভাই শাহীনের দায়িত্ব এখন অনেকটাই শফিকের উপর পড়ে। পড়াশোনা শেষ করে কিছুদিন চাকরিও করেছে সে। ভার্সিটি পড়–য়া শাহীন বড় ভাইয়ের আগেই বিয়ে করে ফেলায় সংসারে এক ধরনের অস্থিরতা তৈরি হয়। একদিন মাকে নিয়ে ডাক্তার ফিরোজের কাছে যায় শফিক। তিনিও মুক্তিযোদ্ধা। তিনি শফিককে কিছু পরামর্শ দেন। সে অনুযায়ী শফিক তার মাকে ঢাকায় রেখে গ্রামে চলে যায়। সেখানে নতুন জীবন শুরু হয় তার, শুরু হয় নতুন গল্প।