ধারাবাহিকে আমি ফাঁকিবাজি করব!

ধারাবাহিকে আমি ফাঁকিবাজি করব!

332
SHARE
sajol

গত ঈদে সজলকে বেশকিছু নাটকে অভিনয় করতে দেখা যায়। এখন ব্যস্ত আছেন কোরবানি ঈদের কাজের শুটিং নিয়ে। পাশাপাশি চলচ্চিত্রের শুটিং নিয়েও রয়েছে তার ব্যস্ততা। কথা হলো সজলের সঙ্গে-

আনন্দ আলো: গত ঈদে প্রচার হওয়া কাজের জন্য কেমন সাড়া ফেলেন?

সজল: ভালোই সাড়া পেলাম। অনেকেই আমার অভিনীত নাটক দেখে প্রশংসা করেছেন। আমি নিজেও বেশকিছু নাটক দেখেছি।

আনন্দ আলো: কী মনে হয়- দর্শক আগের মতো নাটক দেখে?

সজল: অবশ্যই নাটক দেখে। বরং, এখন দর্শক কোনো নাটক টিভিতে দেখা মিস করলে তা ইউটিউব এ দেখে। এবার ঈদে এত এত নাটক দর্শক অবশ্যই দেখেছেন। এখন কথা হচ্ছে সব নাটক যে ভালো মানের হয়েছে তা বলা যাবে না।

আনন্দ আলো: খÐ নাটকে আপনাকে বেশি দেখা যায়। ধারাবাহিকে নয় কেন?

সজল: কেন জানি মনে হয়, ধারাবাহিক নাটকে আমি ফাঁকিবাজি করব। কোনোভাবেই অতটা সময় দিতে পারব না। তাছাড়া এক ঘণ্টার নাটকগুলোর গল্প একবারেই দর্শকরা দেখে শেষ করে দিতে পারেন- এতে করে নাটকগুলোর গ্রহণযোগ্যতা তাদের কাছে অনেক বেশি থাকে।

আনন্দ আলো: আপনাকে তো অভিনয়ের পাশাপাশি পারিবারিক ব্যবসায়ও সময় দিতে হয়…

সজল: হ্যাঁ। আমাদের পারিবারিক ব্যবসা আছে। শিপিংয়ের। অভিনয়ের বাইরে ওখানেই সময় বেশি দেই।

আনন্দ আলো: চলচ্চিত্রের কী খবর?

সজল: ‘হারজিৎ’ সিনেমার অনেক অংশের শুটিং শেষ হয়েছে। বাকি অংশের শুটিং খুব শিগগরিই শুরু হবে। অন্যরকম এক গল্পের ছবি ‘হারজিৎ’। দর্শক অন্যরকম এক সজলকে এই ছবিতে দেখতে পাবেন।

আলোচিত ছোটকাকু’ খেলা হলো খুলনায়

গত কয়েক বছর ধরে ঈদ আনন্দ মানে চ্যানেল আইতে বিশিষ্ট শিশুসাহিত্যিক ও টিভি ব্যক্তিত্ব ফরিদুর রেজা সাগরের ‘ছোটকাকু’ সিরিজের গল্পের ধারাবাহিক। এবারও ঈদে প্রচার হয় এই সিরিজের রহস্যে ঘেরা গল্পের নাটক। এবারের নাটকের শিরোনাম ছিলো ‘খেলা হলো খুলনায়’। বরাবরের মতো সিরিজটির এবারও নির্মাণের পাশাপাশি ‘ছোটকাকু’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিশিষ্ট নির্মাতা-অভিনেতা আফজাল হোসেন। ৮ পর্বের এ সিরিজটিতে আরো অভিনয় করেছেন অর্ষা, তানভীর হোসেন প্রবাল প্রমুখ। বিভিন্ন টিভি চ্যাানেলের ঈদ আয়োজনের অনেক অনুষ্ঠানের ভিড়ে ‘খেলা হলো খুলনায়’ দর্শকদের বেশ নজর কাড়ে। ঈদ আয়োজনে এই ধারাবাহিকটি গত কয়েক বছর ধরে দর্শকদের বাড়তি বিনোদন দিয়ে আসছে।