দুই জায়গাই আমার কাছে সমান জনপ্রিয়

দুই জায়গাই আমার কাছে সমান জনপ্রিয়

493
SHARE
Anisur-Rahman-Milon

জনপ্রিয় অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন ছোটপর্দা ও বড়পর্দা- দুই মাধ্যমেই সমানতালে কাজ করছেন। সম্প্রতি তার অভিনীত নতুন আরেকটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। সমসাময়িক ব্যস্ততা নিয়ে কথা হলো তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: সম্প্রতি আপনার অভিনীত ‘ওয়ানওয়ে’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। এ ব্যাপারে কিছু বলুন।

আনিসুর রহমান মিলন: ‘ওয়ানওয়ে’ মূলত মৌলিক গল্পের অ্যাকশন-রোমান্টিকধর্মী ছবি। এর গল্পে অনেক গভীরতা রয়েছে। সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে- এ ছবিতে প্রেমকে বেশ সাবলীলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। ছবিটি নিয়ে ভালোই সাড়া পাচ্ছি। এ ছবির গল্পে আমাকে অপরাধ জগতে জড়িয়ে পড়া এক তরুণের চরিত্রে দেখা যায়। আমি ছোট-খাটো অপরাধ করতে গিয়ে এক সময় আন্ডারওয়ার্ল্ডের ডন হয়ে যাই। কিন্তু একটি মেয়ের প্রতি আমি অনেক দুর্বল থাকি। একজন শক্তিশালী মানুষ তার ভালোবাসার কাছে কতটা দুর্বল মূলত আমার চরিত্রটির মাধ্যমে সেটিই ফুটিয়ে তোলা হয়।

আনন্দ আলো: বর্তমান ব্যস্ততা কী নিয়ে?

আনিসুর রহমান মিলন: বর্তমানে আমি ‘স্বপ্নবাড়ি’ ছবির শুটিং করছি। ছবিটি স্বপ্ন দেখা নিয়ে নির্মিত হচ্ছে। ছবিতে আমার বিপরীতে অভিনয় করছেন মম। এছাড়াও নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। বেশকিছু ধারাবাহিক ও খণ্ড নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছি।

আনন্দ আলো: আর নতুন কোনো চলচ্চিত্রে কাজ করছেন?

আনিসুর রহমান মিলন: ‘রাজনীতি’, ‘টার্গেট’, ‘ক্রাইম রোড’, ‘রাত্রির যাত্রী’ ছবিগুলোর কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছি। প্রতিটি ছবিতেই আমার চরিত্রের ভিন্নতা রয়েছে। আমি ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ছবির গল্প ও আমার চরিত্রের ব্যাপারে খুব সিরিয়াস। প্রধানত গল্প ও চরিত্র পছন্দ না হলে সেই ছবিতে কাজ করি না।

আনন্দ আলো: দুই মাধ্যমেই তো সমান তালে কাজ করছেন…

আনিসুর রহমান মিলন: হ্যাঁ। আমি আসলে টিভি নাটক ও চলচ্চিত্র- দুটো মাধ্যমেই সমানতালে কাজ করছি। দু’টো জায়গাই আমার কাছে সমান জনপ্রিয়। অনেকেই ভেবেছিল আমি টিভি নাটক থেকে চলচ্চিত্রে কাজ করা শুরু করলে হয়তো টিভি নাটকে আর কাজ করবো না। কিন্তু কয়েক বছর ধরে ঠিকই আমি দুই মাধ্যমে কাজ করছি।

কৃষ্ণপক্ষ প্রহরী

স্বামী নাইটগার্ড আর স্ত্রী কাজের বুয়া। প্রতিনিয়ত জীবনযুদ্ধে লড়াই করে চলা সংসার তাদের। সেই সংসার আলো করে আছে এক কন্যাসনৱানও। তাকে ঘিরে দম্পতির অনেক আশা; স্বপ্ন। কিন্তু অভাব আর প্রানিৱক জীবনের টানাপোড়েনে মার খায় সেই স্বপ্ন। এমনই এক গল্প নিয়ে চ্যানেল আইয়ের জন্য নির্মিত হয়েছে নাটক ‘কৃষ্ণপক্ষ’। এটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন তুহিন হোসেন। নাটকটিতে দম্পতি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইনেৱখাব দিনার ও সুষমা সরকার। তাদের মেয়ে চরিত্রে দেখা যাবে শিশুশিল্পী মাইশাকে। এই নাটক দিয়ে প্রথমবারের মতো কাজের বুয়ার চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুষমা। তিনি বলেন, ‘একেবারেই ভিন্ন এক অভিজ্ঞতা এই চরিত্রে কাজ করার। কেননা, প্রথমবার করলাম। সমাজের কঠিন বাস্তবতাকে ঘিরে সাজানো হয়েছে গল্পটি। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।’ পরিচালক তুহিন হোসেন জানান, এতে গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন কচি খন্দকার। সম্প্রতি তুরাগ নদীর পাশের একটি বসতিতে ‘কৃষ্ণপক্ষ’র দৃশ্যধারণ সম্পন্ন হয়।

ধারাবাহিকে শাহতাজ

ছোটপর্দার এ সময়ের মডেল-অভিনেত্রী ও গায়িকা শাহতাজ মনিরা হাশেম প্রথমবার ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। ‘হিং টিং ছট’ নামের নাটকটির কাজ চলছে থাইল্যান্ডের পাতায়ায়। সম্প্রতি থাইল্যান্ডে গিয়ে পৌঁছান শাহতাজ। প্রথমবার ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন তিনি। নাটকে তাকে দেখা যাবে হিয়া চরিত্রে। তিনি বললেন, ‘ধারাবাহিক বলে যে আলাদা কিছু মনে হচ্ছে তা না। তবে আগামীতে নিয়মিত ধারাবাহিকে কাজ করবো কি-না নিশ্চিত নই।’ ‘হিং টিং ছট’ ধারাবাহিকে আরও অভিনয় করছেন তারিক আনাম খান, তানিয়া আহমেদ, সাজু খাদেম, ফারহানা মিলি, তৌসিফ মাহবুব, শবনম ফারিয়া, সিয়াম আহমেদ, লুৎফুন্নাহার আশা ও আরফান আহমেদ। লিখেছেন ও পরিচালনা করছেন রাজিবুল ইসলাম রাজিব।