দশ বছর পর ঐন্দ্রিলা!

দশ বছর পর ঐন্দ্রিলা!

SHARE
Oindrila

প্রয়াত চিত্রনায়ক বুলবুল আহমেদের যোগ্য উত্তরসূরি ঐন্দ্রিলা আহমেদ দীর্ঘ দশ বছরের বিরতি শেষে ফিরেছেন অভিনয়ে। নতুন প্রত্যাবর্তনের পর বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন এই অভিনেত্রী। কথা হলো তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: দীর্ঘ দশ বছর পর অভিনয়ে ফেরা। অনুভূতিটা কেমন?

ঐন্দ্রিলা: নিঃসন্দেহে দারুণ। আমার বড় হয়ে উঠাটা অভিনয়ের আঙ্গিনাতেই। এটা আমার অনেক পছন্দের জায়গা। এতদিন পর এসে মনে হয়েছে আমি যেন আমার পরিবারেই ফিরেছি।

আনন্দ আলো: মাঝে বেশ লম্বা সময় বিরতি ছিল আপনার। সেই সময়টা কীভাবে পার করেছেন?

ঐন্দ্রিলা: অভিনয় না করলেও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাÐে ঠিকই জড়িত ছিলাম এই বিরতির সময়টুকুতে। নিজের পড়াশোনা, সংসার জীবন গুছিয়ে নিতেও একটু সময় লেগেছে। এগুলোর পাশাপাশি আমার বাবাকে নিয়ে ‘এক জীবন্ত কিংবদন্তির কথা’ নামে একটি ডকুমেন্টারি আর বাবার জীবনী নিয়ে ‘একজন মহানায়কের কথা’ শিরোনামে একটি বায়োগ্রাফি তৈরি করেছি।

আনন্দ আলো: অভিনয়ে ফেরার পর ব্যস্ততা কেমন?

ঐন্দ্রিলা: ফেরার পর এরই মধ্যে তিনটি নাটকে কাজ করেছি। রুবেল হাসানের ‘বিলাভড’, মাবরুর রশীদ বান্নাহর ‘সাংসারিক ভালোবাসা’ এবং দীপু হাজরার ‘ফেইক লাভ’। প্রচুর কাজের অফার আসছে কিন্তু সবগুলো গ্রহণ করছি না। তাড়াহুড়া করতে চাই না। আমি অবশ্য এমনটা কখনোই করিনি। একসঙ্গে অনেক কাজ করতে পারিও না। ফলে আমি আগের মতোই আস্তে ধীরে বেছে বেছে পছন্দসই কাজ করতে চাই।

আনন্দ আলো: আগামীর প্রত্যাশা কী?

ঐন্দ্রিলা: ভালো কাজ করে যেতে চাই। বাবাকে নিয়ে বায়োগ্রাফি লিখতে গিয়ে বেশ কয়েকটা চিত্রনাট্যও তৈরি করে ফেলেছি যা দেখে ভালো লেগেছে বলে কয়েকজন নির্মাতা কাজ করতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। ভালো ভালো কাজ করার পাশাপাশি চিত্রনাট্য রচনাও চালিয়ে যাব।

আবারও উপস্থাপনায় তানিয়া আহমেদ

TANIA-AHMEDজিটিভিতে প্রচারিত জনপ্রিয় গেম শো ‘আজকের অনন্যা’ শুরু হয়েছিল তানিয়া আহমেদের উপস্থাপনায়। এরপর পর্যায়ক্রমে অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ফারহানা নিশো, আজমেরী হক বাঁধন এবং মৌসুমী হামিদ। আবারো অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনায় ফিরেছেন তানিয়া আহমেদ। সম্প্রতি এফডিসিতে চলে অনুষ্ঠানটির শুটিং। নতুন সিজনে ‘আজকের অনন্যা’য় আনা হয়েছে একাধিক পরিবর্তন। পুরনো গেম বাদ দিয়ে যুক্ত করা হয়েছে সব নতুন নতুন গেমস। সেই সাথে প্রতিটি গেমসের জন্য তৈরি করা হয়েছে আলাদা সেট। উপস্থাপনায়ও থাকছে একাধিক চমক।

নারীর পরিধি এখন চার দেয়ালের মধ্যে সীমিত নেই। ঘরে-বাইরে সর্বত্রই নারীরা পালন করে চলেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। ‘আজকের অনন্যা’ অনুষ্ঠানটি হলো সেই সব নারীদের প্ল্যাটফর্ম, যারা নিয়মিত জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেন। নারীদের মধ্যে যারা সংসারের পাশাপাশি চাকরি, ব্যবসা, সেবামূলক কাজ যুক্ত তাদের জন্য জিটিভির নিয়মিত অনুষ্ঠান ‘আজকের অনন্যা’।

ঘর-সংসার আর অন্যসব কাজের বাইরেও এমন অনেক নারী আছেন যারা আরো অনেক কিছু করতে পারেন ও করতে চান। যাদের মধ্যে আছে সুপ্ত প্রতিভা, যা সময় সুযোগের অভাবে প্রকাশ হয়নি। সেই সকল নারীদের ইচ্ছা এবং প্রতিভার প্রকাশ ঘটাতেই এ অনুষ্ঠানটি প্রচার হচ্ছে।

অনুষ্ঠানটি পুনরায় উপস্থাপনা প্রসঙ্গে তানিয়া আহমেদ বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই উপস্থাপনা করছি। ‘আজকের অনন্যা’য় উপস্থাপনা আমার ভালোলাগার আর ভালোবাসার প্ল্যাটফর্ম। এখানে অনেক মানুষের সাথে আড্ডা হয়, বিভিন্ন মানুষের দর্শন সম্পর্কে জানা যায়। আশা করছি আমার উপস্থাপনা আবারো দর্শক উপভোগ করবেন।’

তানিয়া আহমেদের উপস্থাপনায় ও তুষার জামালের প্রযোজনায় ‘আজকের অনন্যা’ অনুষ্ঠানটি প্রতি বৃহস্পতিবার রাত ৯.৩০ মিনিটে জিটিভিতে প্রচার হচ্ছে।