চাওয়ার চেয়ে বেশি পাচ্ছি

চাওয়ার চেয়ে বেশি পাচ্ছি

155
SHARE
mahi-1

ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়িকা মাহিয়া মাহি। সম্প্রতি তার অভিনীত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে।  সবেমাত্র রবিন খানের নতুন ছবি ‘মন দেব মন নেব’ এর শুটিং করলাম।  এছাড়া আরও প্রায় হাফ ডজন ছবির কাজ তার ঝুলিতে। কথা হলো মাহির সঙ্গে-

আনন্দ আলো: ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবি মুক্তির পর প্রচারণায় আপনাকে দেখা যায়নি কেন?

মাহি: ঢাকা অ্যাটাক মুক্তি পেয়েছে ৬ অক্টোবর। আমি অন্য ছবির শুটিং এ ২৪ সেপ্টেম্বর লালমনিরহাট এসেছি। তবে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি না এমনটা নয়। আমাকে ফোন করলে সাক্ষাৎকার দিচ্ছি। তাছাড়া সবসময় আপডেট জানার চেষ্টা করছি কেমন যাচ্ছে ছবিটি।

আনন্দ আলো: ছবিটি হলে বসে দেখেছেন?

মাহি: যেদিন মুক্তি পায় ওইদিন রংপুর শাপলা সিনেমা হলে গিয়ে ছবিটি দেখি। বোরকা পরে গোপনে ছবি দেখতে গিয়েছিলাম। আমার মা এবং কয়েকজন বন্ধু ছিল সঙ্গে। হলে গিয়ে দেখি টিকিট নেই। কাউন্টারে টিকিট না পেয়ে হতাশ হয়েছিলাম। এ সময় স্থানীয় এক ব্যক্তি আমাদের টিকিটের ব্যবস্থা করে দেন, তবে তা ব্ল্যাক। দ্বিগুণ দাম দিয়ে টিকিট কিনতে হয়েছিল।

আনন্দ আলো: অনেকেই বলছেন ছবিতে আপনার চরিত্র তেমন নজর কাড়েনি?

মাহি: আমি তেমনটা মনে করি না। ছবিতে আমার উপস্থিতি তুলনামূলক কম হতে পারে, কিন্তু আমি চেষ্টা করেছি চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার জন্য। এটা প্রেমের কোনো গল্প নয়। একক চরিত্রের আধিপত্যও এখানে নেই। অনেকগুলো চরিত্র মিলেই গল্পটাকে সফল করেছে পর্দায়। আমার চরিত্রটি তাদেরই একজন।

আনন্দ আলো: আজকাল আপনি নাকি নায়িকা প্রধান ছবির বাইরে কাজ করতে চান না, কেন?

মাহি: কাজ করতে চাই না এটা সত্যি নয়। সত্যিটা হলো নায়িকা প্রধান ছবিতে কাজ করতে বেশি আগ্রহী আমি। সারা দুনিয়ায় নায়িকা নির্ভর গল্প নিয়ে ছবি নির্মিত হচ্ছে। আর আমাদের দেশে নায়িকা কেবল নায়কের সাপোটিং ক্যারেক্টার! এই জায়গাটায় পরিবর্তন আনতে চেষ্টা করছি। বেশ কিছু ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করতে পারছি। এই দেশে নায়িকা হয়ে একসঙ্গে এতগুলো ছবিতে নাম ভূমিকায় কাজ করতে পারা ভাগ্যের ব্যাপার। আমার মনে হয় চাওয়ার চেয়ে বেশি পাচ্ছি আমি। ..

আনন্দ আলো: মন দেব মন নেব’ ছবির কথা বলুন।

মাহি: এই ছবিটা কিন্তু দারুণ হবে। পরিচালক রবিন খান খুব যতœ করে ছবিটা বানাচ্ছেন। ক্যামেরায় আছেন আমাদের সবার প্রিয় মাহফুজুর রহমান। আমি এই ছবিটা নিয়ে বেশ আশাবাদী।

আনন্দ আলো: সংসার কেমন চলছে?

মাহি: সবার দোয়ায় খুব ভালো আছি। অপু আমাকে খুব ভালোবাসে। আমাকে হুটহাট সারপ্রাইজ দেয়। আমি খুব এনজয় করি। সবার কাছে দোয়া চাই যেন এভাবেই বাকিটা জীবন একসঙ্গে কাটাতে পারি।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কৃত অজ্ঞাতনামা

oggatonamaশিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৭’। ঢাকাসহ দেশের ৬৪ জেলায় ৬ থেকে ২১ অক্টোবর ১৬ দিনব্যাপী এ উৎসব হয়। এর সমাপনী দিনে উৎসবে জমাকৃত সমকালীন চলচ্চিত্র থেকে দুটি ছবিকে তিনটি শাখায় পুরস্কৃত করা হয়। ৫ সদস্যবিশিষ্ট জুরি কমিটির মাধ্যমে বাছাই করে ৩টি বিভাগে পুরস্কার প্রদান করা হয় যথাক্রমে- শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অজ্ঞাতনামা’, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা তৌকীর আহমেদ ও  বিশেষ জুরি পুরস্কার প্রাপ্ত হয়েছে চলচ্চিত্র ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’। পুরস্কার তিনটি গ্রহণ করেন ‘অজ্ঞাতনামা’র নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুল চিশতি, নির্মাতা তৌকীর আহমেদ ও ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’-এর অভিনেত্রী ঋতিকা নন্দিনী শিমু। ২১ অক্টোবর রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈয়দ হাসান ইমাম, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও উৎসব জুরি কমিটির চেয়ারম্যান মশিহ উদ্দিন শাকের, শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীসহ অনেকে।

উৎসবে অংশ নেয় ৪৪টি চলচ্চিত্র। সেখান থেকে ১১টি চলচ্চিত্র মূল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে এবং এই  তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হয়।