গানবাজনা

গানবাজনা

923
SHARE

সাবিনা ইয়াসমিনের কণ্ঠে নতুন গান

গানের পাখি সাবিনা ইয়াসমিন। একের পর এক নতুন গান উপহার দিয়ে চলেছেন দর্শক শ্রোতাদের। তারই ধারাবাহিকতায় আরো একটি নতুন চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিলেন তিনি। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এবং ইমপ্রেস টেলিফিল্মের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নির্মিত চলচ্চিত্রটির নাম ‘পুত্র’। ছবিটি পরিচালনা করছেন নির্মাতা সাইফুল ইসলাম মান্নু। ‘এবার তোমার কিসের বলো ভয়’ শিরোনামে গানটি লিখেছেন পরিচালক নিজেই। গানটির সুর করেছেন সুজন আরিফ। ছবিতে ঠোঁট মেলাবেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। সাইফুল ইসলাম মান্নু জানালেন, চ্যানেল আইয়ের স্টুডিওতে গানটির রেকর্ডিং হয়েছে। সাবিনা ইয়াসমিনের কণ্ঠ নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। অসাধারণ গেয়েছেন তিনি। আশা করি ভালো কিছু হবে। এটি ছাড়াও ছবিতে আরো দু’টি গান থাকছে। যার একটি কণ্ঠ দেবেন কণ্ঠশিল্পী মেহরীন। গানটি প্রসঙ্গে সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, অনেক ভালো কিছু কথার ওপর ভিত্তি করে গানটি তৈরি হয়েছে। এই গানটির কথা যেমন সুন্দর সুরও অনেক সুন্দর। আশা করছি শ্রোতাদের ভালো লাগবে। তিনি আরো জানান, বর্তমানে অনেক নতুন মিউজিশিয়ান আমাদের এই ইন্ডাস্ট্রিতে আসছে। তাঁরা ভালো কাজ করছে। তাঁদের সঙ্গে কাজ করতে আমাদেরও ভালো লাগে। আশা করছি সামনে আরো ভালো করবে।

না ফেরার দেশে ওসত্মাদ ইয়াসিন খান

দেশীয় উচ্চাঙ্গসঙ্গীতের অন্যতম পথিকৃৎ ওসত্মাদ ৪ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার রাতে নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বর্ষীয়ান এই সাধকের মৃত্যুতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীসহ একাডেমির সর্বসত্মরের কর্মকর্তা, শিল্পী ও কর্মচারী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। একাডেমীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের শিল্প ও সংস্কৃতিতে বিশেষ করে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের উন্নয়ন ও বিকাশের লক্ষে ওসত্মাদ ইয়াসিন খান যে বলিষ্ঠ অবদান রেখেছেন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী তা গভীর  কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করছে। প্রখ্যাত এ শিল্পীর মৃত্যুতে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের ক্ষেত্রে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা সহজে পূরণ হওয়ার নয়। ধ্রুপদ ধারায় বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী এ শিল্পীকে গুণীজন সংবর্ধনা দিয়েছেন। গত বছর চ্যানেল আই বাংলা খেয়াল ২০১৫ উৎসবে আজীবন সম্মাননা পান ওসত্মাদ ইয়াসিন খান। এছাড়া তিনি বিভিন্ন সময়ে ওসত্মাদ আলাউদ্দিন খাঁ সঙ্গীতাঙ্গনে স্বর্ণপদকসহ বিভিন্ন পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

ওয়ালটন ঘরে ঘরে আমাদের পণ্য গানের উৎসব ২০০ পর্বে

চ্যানেল আই-এর জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘ওয়ালটন ঘরে ঘরে আমাদের পণ্য গানের উৎসব’ ২০০ পর্ব অতিক্রম করেছে। সে পর্বে অংশ নিয়েছিল জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী এস আই টুটুল। অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে প্রযোজক অনন্যা রুমা বলেন, অনুষ্ঠানে কিছু নতুনত্ব আনা হচ্ছে। সংযোজন করা হবে আঞ্চলিক শিল্পীদেরও। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন মৌসুমী বড়ুয়া ও সাথী। অনুষ্ঠানটি চ্যানেল আইতে সরাসরি সম্প্রচার হচ্ছে প্রতি রবিবার বিকেল ২.৪০ মিনিটে।

এবারও জমেছিল বাংলা খেয়াল উৎসব

BANGLA-KHEYLবাংলা খেয়াল সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চ্যানেল আই-এর আয়োজনে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বাংলা খেয়াল উৎসব ২০১৬। এবারের খেয়াল উৎসবে আজীবন সম্মাননা পেল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান সঙ্গীতজ্ঞ আজাদ রহমানের সংস্কৃতি কেন্দ্র ‘সেন্টার ফর এডুকেশন, ক্রিয়েটিভ অ্যান্ড পারফরমিং আর্ট’। ৩১ জানুয়ারি সন্ধ্যা থেকে শুরু হওয়া উৎসবটি চলে ১ ফেব্রুয়ারি সকাল পর্যনত্ম। উৎসবের শুরুতেই সংগঠনটিকে সম্মাননায় ভূষিত করা হয়। সংস্কৃতি কেন্দ্রের কর্ণধার সঙ্গীতজ্ঞ আজাদ রহমানের হাতে সম্মাননা স্মারক ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন চ্যানেল আই-এর বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীতজ্ঞ সালাউদ্দীন আহমেদ ও বিশিষ্ট নজরুল সঙ্গীত শিল্পী ফেরদৌস আরা। উৎসবের উদ্বোধনী পর্বে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগরসহ বরেণ্য শিল্পীবৃন্দ। ৩১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ‘আপন ভাষায় আপন সুরে’ গানের সঙ্গে সমবেতভাবে পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় খেয়াল উৎসবের মূল কার্যক্রম। সঙ্গীতজ্ঞ আজাদ রহমানের তত্ত্বাবধানে বরেণ্য শিল্পীদের পাশাপাশি নবীন শিল্পীরা খেয়াল পরিবেশন করে দর্শক শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। বাংলা খেয়াল পরিবেশন করেন খায়রুল আনাম শাকিল, শাহিন সামাদ, ড. অসিত রায়, ইউসুফ আহমেদ খান, সালাহউদ্দিন আহমেদ, ওসত্মাদ লিও জে বারৈ, ওসত্মাদ করিম শাহাবুদ্দিন, ড. নাশিদ কামাল, ড. লীনা তাপসী খান, ড. হারুন অর রশিদ, ডালিয়া নওশীন, ড. শায়লা তাসমিন, প্রিয়াঙ্কা গোপ, স্বর্ণময় চক্রবর্তী, ড. মিন্টু কৃষ্ণ, তানজিনা করিম, আলিফ লায়লা প্রমুখ। সেতার পরিবেশন করেন ফিরোজ খান। সরোদ পরিবেশন করেন ইউসুফ খান। বাঁশিতে সুর তোলেন গাজী আব্দুল হাকিম। চ্যানেল আই রাতভর উৎসবটি সরাসরি সম্প্রচার করে।

দাদা সাহেব ফালকে সম্মাননা পাচ্ছেন রুনা লায়লা

Ganbazna-11-09চলচ্চিত্র শিল্পে ভারত সরকারের সর্বোচ্চ সম্মাননা দাদা সাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন আনত্মর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা। সম্প্রতি এক চিঠির মাধ্যমে তাঁকে সুখবরটি দিয়েছে দাদা সাহেব ফালকে ফিল্ম ফাউন্ডেশন। এবারের দাদা সাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী নির্বাচনের জুরি বোর্ডের সদস্য হিসেবে এ সম্মাননা পাচ্ছেন রুনা লায়লা। সম্প্রতি ফেসবুকে খবরটি জানান তিনি। চিঠিতে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আশফাক খোপিকার জানান, বিজয়ী নির্বাচনে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সম্মানিত জুরি সদস্যদের সম্মাননা দেওয়ার সিদ্ধানত্ম নিয়েছে আমাদের ম্যানেজিং কমিটি। রুনা লায়লা বলেছেন, জুরি সদস্য হিসেবে দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কার পাওয়াটা আমার জন্য আনন্দের ব্যাপার।

বাংলাদেশি শিল্পী হিসেবে এ সম্মাননা প্রাপ্তিকে গর্বের হিসেবেই দেখছি। এর আগে দাদা সাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ডের বিজয়ী নির্বাচন করে একটি জুরি বোর্ড। এই বোর্ডে বিচারক মনোনীত হন রুনা লায়লা। কিছুদিন আগে তাঁর হাতে আয়োজক দাদা সাহেব ফালকে ফিল্ম ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে পাঠানো অনুরোধের চিঠি আসে। এতে স্বাক্ষর করেছেন ফাউন্ডেশনটির ম্যানেজিং ট্রাস্টি আশফাক খোপিকার। চিঠিতে রুনা লায়লাকে বলা হয়েছে আপনার দীর্ঘ সঙ্গীত জীবনের অভিজ্ঞতা ও অর্জন দাদা সাহেব ফালকে ফাউন্ডেশনকে সমৃদ্ধ করবে। ১৯৬৯ সালে ভারতীয় চলচ্চিত্রের জনক দাদা সাহেব ফালকের জন্মশত বার্ষিকীতে এই পুরস্কার প্রবর্তন করা হয়। পুরস্কার হিসেবে একটি স্বর্ণকমল পদক, একটি শাল এবং ১০ লাখ রুপি প্রদান করা হয় নির্বাচিত বিজয়ীকে। এবারের বিজয়ীর হাতে পুরস্কার দেয়া হবে আগামী ৩০ এপ্রিল।