Home আরোও বিভাগ ইভেন্ট এসি আই পিওর সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতা ২০১৮ সমুদ্র...

এসি আই পিওর সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতা ২০১৮ সমুদ্র কন্যা কক্সবাজার মেতে উঠেছিল আনন্দ উৎসবে

SHARE
Vorta-1

সৈয়দ ইকবাল ও মোহাম্মদ তারেক:
ভর্তা নিয়ে কতই না স্মৃতি আমাদের। গরম ভাতের সঙ্গে যদি থাকে পছন্দের তরকারি অর্থাৎ মন পছন্দের ভর্তা তাহলে খাবারের আকর্ষণ বহুগুণে বেড়ে যায়। বাংলাদেশে অঞ্চল ভেদে ভর্তার প্রচলন আছে। অতিথি আপ্যায়নের ক্ষেত্রে দেশের প্রায় প্রতিটি পরিবারের খাবারের তালিকায় ভর্তার আয়োজন থাকে চোখে পড়ার মতো। খাবারের তালিকায় ভর্তার গুরুত্ব অনুধাবন করে ঢাকাসহ দেশের ছোটবড় প্রায় প্রতিটি শহরে ভর্তা ভাতের হোটেল, রেস্টুরেন্ট গড়ে উঠেছে। সেখানে ক্রেতার চাহিদাও প্রচুর। এমন অনেক পরিবার আছে যারা শুধুমাত্র হরেক পদের ভর্তা দিয়ে ভাত খাওয়ার জন্য এইসব হোটেল, রেস্টুরেন্টে সময় পেলেই ঢুঁ মারেন। ঢাকা শহরের প্রায় প্রতিটি এলাকায় ভর্তার আয়োজন সমৃদ্ধ হোটেল গড়ে উঠেছে। হোটেলগুলোতে সারাক্ষণ খদ্দেরের ভিড় লেগেই থাকে। অনেকে শুধুমাত্র ভর্তা কেনার জন্য এইসব হোটেলে আসেন।
বাঙালির রসনা বিলাসে ভর্তার এই গুরুত্বকে আরও উচ্চকিত ও জনপ্রিয় করে তোলার লক্ষ্যে বাংলাদেশের বিশিষ্ট কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান এসিআই গ্রæপ-এর আন্তরিকতায় আনন্দ আলোর উদ্যোগে গত বছর শুরু হয়েছিল ‘এসিআই পিওর সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতা’ শীর্ষক দেশব্যাপি ভর্তা এই প্রতিযোগিতা। প্রথম বছরের ব্যাপক সাফল্যের পর দ্বিতীয় বছরের প্রতিযোগিতার গ্র্যাÐ ফিনালে অনুষ্ঠিত হলো এবার সমুদ্র কন্যা কক্সবাজারে। তার আগে সারাদেশ থেকে প্রাথমিক রাউন্ডে অংশ নেয়া কয়েকশ প্রতিযোগী থেকে বাছাই করা ৫০ জন প্রতিযোগীকে নিয়ে তেজগাঁওস্থ চ্যানেল আই-এর ছাদঘরে দ্বিতীয় রাউন্ডের বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হয়। আনন্দ ও উৎসব মুখর এই পর্বে ঢাকাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে প্রতিযোগীরা সরাসরি এই ভর্তা প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। বিশিষ্ট রন্ধনবিদ কেকা ফেরদৌসীর নেতৃত্বে এই পর্বে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিশিষ্ট শিশুসাহিত্যিক আমীরুল ইসলাম, জেবুন্নেসা বেগম, মেহেরুন নিসা, কানিজ ফাতেমা রিপা, মাহবুবা রেজানুর ও শুভব্রত মিত্র।
ওই দিন অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ফেরদৌস আরাসহ দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। বিচারকদের রায়ে প্রতিযোগিতার সেরা পাঁচ এ উঠে আসেন যথাক্রমেÑ ফাতেমা জাহান, মাহমুদা নাজনীন, রেহানা সিদ্দিকী, লুৎফুন নাহার ও রাবেয়া সুলতানা লিজা।
আগেই ঘোষণা হয়েছিল এবারের প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজারে। স্থান হিসেবে কক্সবাজারের ওশান প্যারাডাইজ হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টের ছাদকে নির্বাচন করা হয়। ঢাকা চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার রুটের নজীরবিহীন যানজটকে উপেক্ষা করে পাঁচ প্রতিযোগী ও তাদের পরিবারবর্গ সড়ক পথে হাজির হন সমুদ্র কন্যা কক্সবাজারে। ওশান প্যারাডাইজের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রুমে তাদের থাকার জায়গা নির্ধারণ করা ছিল আগে থেকেই। ঢাকা থেকে আকাশ পথে কক্সবাজারে উড়ে আসেন আনন্দ আলোর সম্পাদকমÐলীর সভাপতি ফরিদুর রেজা সাগর, এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ড ও এসিআই ফুডস লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আলমগীর, এসিআই-এর বিজনেস ডিরেকটর ফারিয়া ইয়াসমিন, প্রধান বিচারক কেকা ফেরদৌসী, বিচারক আমীরুল ইসলাম, কনা রেজা, মাহবুবা রেজানুরসহ অন্যান্য অতিথিরা। বিশিষ্ট উপস্থাপক, অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী স্থপতি ফরহাদুর রেজা প্রবাল, এসিআই কনজুমার ব্র্যান্ড-এর ডিজিএম মিডিয়া অ্যান্ড কম্যুনিকেশন নাহিদ নেওয়াজ, সিনিয়র গ্রæপ প্রডাক্ট ম্যানেজার কাস্টমার ব্র্যান্ড সাইদুর রহমান ও ব্র্যান্ড ম্যানেজার মো: মুনতাসির রশিদ, চ্যানেল আই-এর জেনারেল ম্যানেজার (সেলস এন্ড মার্কেটিং) মো: মহিউদ্দিন খান মঈন, চ্যানেল আই-এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার (অর্থ) জিয়াউল ইসলাম ছিলেন অতিথিদের তালিকায় বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।
Vorta-2১৪ মে ২০১৮ সমুদ্র কন্যা কক্সবাজারের ওশান প্যারাডাইজ হোটেলের ছাদে এসিআই পিওর, সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতার আয়োজন পুরোপুরি সম্পন্ন। মঞ্চ প্রস্তুত। চ্যানেল আই-এর ক্যামেরা ও কারিগরি ক্ষেত্রের কর্মকর্তা ও সদস্যরাও প্রস্তুত প্রতিযোগিতার পুরো কার্যক্রম ভিত্তিতেও ধারণ করার জন্য। ওশান প্যারাডাইজ হোটেলের ছাদে দাঁড়ালে কাছেই দেখা যায় সমুদ্রের বিশাল এলাকা। যেন ঢেউ ছুঁয়ে যাচ্ছে ছাদের কিনারায়। সমুদ্রকে পিছনে ফেলে প্রতিযোগীদের ভর্তা প্রতিযোগিতার টেবিল সাজানো হয়েছে। সকালে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি দেখে আয়োজকদের মন খারাপ ছিল। বৃষ্টির কারণে পাছে না সকল আয়োজন পÐ হয়ে যায়। কিন্তু না দুপুরে প্রকৃতি যেন হাসি ছড়ালো। উপরে আকাশের সাদা মেঘ আনন্দের বার্তা ছড়ালো। নীচে সাগরের সৌন্দর্যকে ক্যামেরায় বন্দী করে শুরু হলো পাঁচ প্রতিযোগীর ভর্তা প্রতিযোগিতা পর্ব। আনন্দে থই থই করছে চারপাশ। প্রতিযোগীরা আপন মনে নানা উপকরণ দিয়ে তৈরি করতে ব্যস্ত হয়ে উঠলেন। বিচারকসহ অতিথিরা ভর্তা তৈরির আয়োজন দেখেই মুগ্ধ। এক সময় শুরু হলো মূল বিচারের পালা। ভর্তা তৈরি শেষ। প্রতিযোগীরা দাঁড়িয়ে আছেন তাদের ভর্তা বানানো টেবিলের পিছনে। বিচারকরা ভর্তা খেয়ে নম্বর শিটে নম্বর দিতে থাকলেন। আনন্দের পাশাপাশি যেন এক রুদ্ধশ্বাসপুর্ণ অপেক্ষার পালা শুরু হলো। কে হবেন এবারের বিজয়ী? অবশেষে জানা গেল তাদের নাম। প্রতিযোগিতার মঞ্চে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক দিলরুবা সাথী একে একে ঘোষণা করলেন বিজয়ীদের নাম। তার আগে অনুষ্ঠান মঞ্চে বক্তৃতা করেন চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ড ও এসিআই ফুডস লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আলমগীর, প্রতিযোগিতার পাঁচ বিচারক যথাক্রমে কেকা ফেরদৌসী, ফারিয়া ইয়াসমিন, আমীরুল ইসলাম, কনা রেজা ও মাহবুবা রেজানুর এবং বিশিষ্ট উপস্থাপক ফরহাদুর রেজা প্রবাল।
এসিআই পিওর সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতার এবারের আসরে প্রথম হয়েছেন মিষ্টি কুমড়ো চোচাই চিংড়ি ভর্তার জন্য ফাতেমা জাহান, বাঁশ কোরল আর টুনা মাছের ভর্তার জন্য দ্বিতীয় হয়েছেন মাহমুদা নাজনীন ও বিউটি বেগুন ও ইলিশ ভর্তার জন্য তৃতীয় হয়েছেন রাবেয়া সুলতানা লিজা। পুরস্কার হিসেবে তারা পেয়েছেন চ্যানেল আই-এর সৌজন্যে যথাক্রমে প্রথম ৫০ হাজার, দ্বিতীয় ৩০ হাজার ও তৃতীয় ২০ হাজার টাকা। এছাড়া প্রত্যেক বিজয়ীর হাতে উত্তরীয়, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট তুলে দেন ঢাকা থেকে আগত অতিথিরা।
কক্সবাজার সমুদ্র কন্য যেন তখনও হাসছিল। প্রতিযোগিতার আনন্দ মুখর নানা পর্ব ছিল হাসি, আনন্দ আর উচ্ছ¡াসে মুখর। প্রতিযোগীরা বেশ খুশি। আয়োজকদের মুখেও তৃপ্তির হাসি। এবার অপেক্ষা আগামী বছরের প্রতিযোগিতার জন্য।
উল্লেখ্য, এবারও এই আয়োজনের সহযোগিতায় ছিল চ্যানেল আই। হসপিটালিটি পার্টনার ওশান প্যারাডাইজ, গিফট পার্টনার মুন্নু সিরামিকস , মিডিয়া পার্টনার সাপ্তাহিক ও রেডিও ভ‚মি।

অনেক ধন্যবাদ

ফরিদুর রেজা সাগর
ব্যবস্থাপনা পরিচালক, চ্যানেল আই
গরম ভাতের সঙ্গে গরম ভর্তা সবার প্রিয় খাবার। সেই ভর্তা নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের এবারের প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠিত হলো কক্সবাজারে। বাঙালির রন্ধন সংস্কৃতির একটি বড় অংশ জুড়ে আছে ভর্তা। এই খাবারটিকে এই আরও বেশি করে তুলে ধরার জন্য জাতীয় পর্যায়ের এই আয়োজন। যারা বিজয়ী হয়েছে তাদের জন্য রইল অনেক শুভ কামনা। আয়োজনটিতে আনন্দ আলোর সাথে জড়িত হওয়ায় এসিআই কর্তৃপক্ষকে অনেক ধন্যবাদ।

অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা

সৈয়দ আলমগীর
ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এসিআই কনজ্যুমার ব্রান্ড ও এসিআই ফুডস লি.
আমাদের পরিবারে প্রতি বেলার খাবারের আয়োজনে ভর্তা থাকা চাই-ই-চাই। সেই ভর্তা নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের একটি প্রতিযোগিতার সাথে এসিআই যুক্ত হতে পেরে আনন্দিত। এবারের প্রতিযোগিতার ফাইনাল পর্ব কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হলো। এটিও আনন্দের খবর। আনন্দ আলোর সঙ্গে যৌথভাবে আমাদের এই প্রতিযোগিতাটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে চাই। যারা বিজয়ী হয়েছেন তাদের প্রতি রইল অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

এবারের আয়োজন আরও আকর্ষণীয়

কেকা ফেরদৌসী, প্রধান বিচারক
ভর্তা নিয়ে এবার দ্বিতীয় বারের মতো জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হলো। এসিআই ও আনন্দ আলোর এই যৌথ আয়োজনে যুক্ত থাকতে পেরে আমার খুব ভালো লাগছে। এবার ভর্তার আয়োজন ছিল গতবারের চেয়ে আরও ভালো। রাঁধুনীদের চেষ্টা ছিল ভালো কিছু উপহার দেবার। যারা বিজয়ী হয়েছেন তাদের জন্য রইল অনেক শুভ কামনা।

সবার জন্য শুভ কামনা

ফারিয়া ইয়াসমিন, বিজনেস ডিরেক্টর এসিআই
এসিআই পিওর সরিষার তেল আনন্দ আলো জাতীয় ভর্তা প্রতিযোগিতার এবারের ফাইনাল পর্ব কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হলো। যারা বিজয়ী হয়েছেন তাদের প্রতি রইল অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। ভর্তা আমাদের খাদ্য সংস্কৃতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ দখল করে আছে। তাই আগামীতে আমরা এই প্রতিযোগিতাটিকে আরও বৃহৎপরিসরে নিতে চাই। সবার জন্য রইল শুভ কামনা।