Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড আমার ব্যস্ততা অনেক কিছু নিয়েই

আমার ব্যস্ততা অনেক কিছু নিয়েই

SHARE
Azad-Abul-Kalam

অভিনেতা, লেখক ও নির্দেশক আজাদ আবুল কালাম। দীর্ঘদিন ধরে মঞ্চ, ছোটপর্দা ও বড়পর্দায় অভিনয় করছেন তিনি। কথা হলো তার সঙ্গে-

আনন্দ আলো: কী নিয়ে ব্যস্ত আছেন?

আজাদ আবুল কালাম: বেশকিছু নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছি। এরমধ্যে ধারাবাহিক নাটকও আছে। আমি অন্য অনেকের মতো টানা শুটিং করি না। আমার থিয়েটারের ব্যস্ততা আছে। তাছাড়া নিজে লেখালেখিও করি। সব মিলিয়ে আমার ব্যস্ততা অনেক কিছু নিয়েই। বর্তমানে কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছি। এর মধ্যে ‘যখন কখনো’ এনটিভিতে, ‘মহল্লা বিডি.কম’ মাছরাঙা টিভিতে প্রচার হচ্ছে।

আনন্দ আলো: আপনার লেখা বই বের হয়েছে এবার বইমেলায়…

আজাদ আবুল কালাম: হ্যাঁ। আমার লেখা ‘ট্র্যাজেডি পলাশবাড়ি’ বইটি প্রকাশিত হয়। এটি প্রকাশ করে অনার্য প্রকাশনী। ২০০৫ সালের ১১ এপ্রিল গভীর রাতে সাভারের পলাশবাড়িতে ধসে পড়ে স্পেকট্রাম সোয়েটার অ্যান্ড নিটিং ফ্যাক্টরি। সে সময় ফ্যাক্টরিতে রাতের শিফটে কাজ করছিলেন শতাধিক কর্মী। সেই ঘটনায় নিহত হয় প্রায় ৬৪ জন। তদন্ত কমিটির রিপোর্টে জানা যায়, কোনো রকম ঝুঁকি মোকাবেলার ব্যবস্থা ছাড়াই ঘটনার তিন বছর আগে ফ্যাক্টরিটি তৈরি হয়েছিল একটি জলাভূমির ওপর। ট্র্যাজেডি পলাশবাড়ি নাটকটি সেই ঘটনাকেই কেন্দ্রীভূত করে লেখা, যেখানে একক চরিত্র তারাভান। সেদিনের নাইট শিফটে কাজ করতে আসা কর্মীদেরই প্রতিচ্ছবি।

আনন্দ আলো: ওয়েব সিরিজেও কাজ করছেন। কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

আজাদ আবুল কালাম: স¤প্রতি রবি ও এয়ারটেল নিবেদিত একটি ওয়েব সিরিজের কাজ করেছি। এর নাম ‘ডিটেকটিভ লাভলু মিয়া’। এখানে আমিই লাভলু মিয়া। পেশায় একজন প্রাইভেট গোয়েন্দা। সিরিজটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন শাকিব রায়হান। আমার সহশিল্পী হিসেবে আরও আছেন অপর্ণা ঘোষ, ফারুক আহমেদ প্রমুখ।

আনন্দ আলো: প্রাচ্যনাটের কার্যক্রম নিয়ে বলবেন…

আজাদ আবুল কালাম: এ বছরই আমার লেখা ও নির্দেশনায় নতুন নাটক মঞ্চে আসবে। রবীন্দ্রনাথেরও একটি নতুন নাটক মঞ্চে আনব আমরা। তবে এসব বিষয়ে এখনই বিস্তারিত কিছু বলতে চাই না। এছাড়া প্রাচ্যনাটের ৬-৭টি নাটকের নিয়মিত শো করছি আমরা।

প্রেম বিরহে অপূর্ব ও শিমু

Apurbo-Shimoদীর্ঘদিন ভালোবাসার পরও খুব সহজেই চিনে উঠা সম্ভব হয় না ভালোবাসার মানুষটির আসল রূপ। তা যেন ক্রমশ প্রকাশ পায়! যে মানুষটিকে তিলকদÐ না দেখলে মনের মাঝে সারাক্ষণ অস্থিরতা বিরাজ করত। বিয়ের পরে মানুষটির প্রতি ভালোলাগাটা যেন ক্রমশ হারিয়ে যেতে থাকে। ধীরে ধীরে ভালোবাসার মানুষটি যেন খুব মন্দ লাগার মানুষে পরিণত হয়। শুরু হয় মান অভিমান। এ মান অভিমানই এক সময় সম্পর্ক ভাঙনের কারণ হয়ে দাঁড়ায়! এমনই গল্প নিয়ে স¤প্রতি নির্মিত হয়েছে আহসান হাবিব সকালের রচনায় ইফতেখার ইফতি ও শিল্পী মাহমুদার যৌথ পরিচালনায় নাটক ‘প্রেম বিরহ’। এতে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও সুমাইয়া শিমু। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, ‘নাটকটির নাম শুনেই বোঝা যায় এর গল্প কেমন হবে। প্রেম আর বিরহের গল্প নিয়েই নাটকটি এগোবে। তবে গল্পে কিছুটা টুইস্টও পাবেন দর্শক। মনে হবে এটা আমাদের পাশের কোনো মানুষের গল্প।’ সুমাইয়া শিমু বলেন, নাটকটির গল্প সিরিয়াস টাইপের। গল্পের চিত্রটি আমাদের আশপাশে বা বন্ধুদের জীবনে প্রায় দেখা যায়। সাধারণ গল্পটিই নির্মাতা অসাধারণ করে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। আশা করি সবার ভালো লাগবে।’ নাটকটি শিগগিরই আরটিভিতে প্রচার হবে বলে নির্মাতা জানান।

সেমি কর্পোরেট নিশো

একটি অ্যাড এজেন্সি দাঁড় করাতে অফিসের মানুষগুলোর সাফল্য-ব্যর্থতা, ভাঙা-গড়া এবং পারিবারিক সুখ-দুঃখের গল্প নিয়েই নির্মিত হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘সেমি কর্পোরেট’। নাটকটি রচনা করেছেন রফিকুল ইসলাম পল্টু ও পরিচালনা করেছেন আর বি প্রীতম। এতে প্রধান চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো, অপর্ণা ঘোষ, মিশু সাব্বির, তৌসিফ মাহবুব, সাজু খাদেম, প্রসূন আজাদ, চাষী আলম প্রমুখ। গল্পে দেখা যাবে, প্রচুর অর্থ সম্পত্তি থাকা সত্তে¡ও নিজ হাতেই কিছু করার প্রয়াস থেকেই একটি অ্যাড ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেছে শাওন। যেখানে পরবর্তীতে শাওন তার অফিসে রিক্রুট করে তালহা, সাহিল, মুহিত, মাশরিক এবং আরো অনেককে। নানান মজার ঘটনার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাবে নাটকটির গল্প। নাটকটি আরটিভিতে সপ্তাহের মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় প্রচার হচ্ছে।