আমরা এখন একটি সং প্লে করছি!

আমরা এখন একটি সং প্লে করছি!

381
SHARE
DSC_2908

  বিশেষ সম্পাদকীয়  

রেজানুর রহমান
বাংলা ভাষার মতো এতো মিষ্টি ভাষা বোধকরি পৃথিবীতে আর একটিও নাই। আর তাই কবি লিখেছেন, মোদের গরব মোদের আশা আ’মরি বাংলা ভাষা। কেমন আছে আমাদের প্রিয় মাতৃভাষা? বাহ্যিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে মনে হবে ভালোই আছে সব কিছু। কবি আসাদ চৌধুরীর কবিতার লাইনের মতোÑ খাচ্ছি দাচ্ছি ঝাঁকের কই ঝাঁকে মিশে যাচ্ছি। ভালোই তো চলছে। ভাষার মর্যাদার ক্ষেত্রে আসলেই কি ভালো চলছে সবকিছু? যদি তাই হয় তাহলে সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালুর দাবীতে এখনও ঢাকায় সমাবেশ হবে কেন? দেশের সাধারন মানুষের কাছে প্রিয় মাতৃভাষা বেশ আদরনীয়। কিন্তু সভ্য সমাজে, কর্পোরেট জগতে, বেসরকারী স্কুল কলেজ পর্যায়ে বাংলা ভাষার অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। কিছু কিছু প্রচার মাধ্যমে বাংলা ভাষার বিকৃত উচ্চারণ এবং ইংরেজী বাংলা মিশানো ‘বাংরিজ’ ভাষা প্রকৃত অর্থে বাংলা ভাষার অস্থিত্ব রক্ষায় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে। বিশেষ করে কিছু বেসরকারি রেডিও চ্যানেলে বাংলা ভাষার গুরুত্ব নেই বললেই চলে। তারা যখন বলে ‘এখন আমরা একটি ইংরেজী সং প্লে করব’ তখন সত্যি সত্যি প্রিয় মাতৃভাষার ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক দুশ্চিন্তা হয়। একথা তো সত্য, অনেক ইংরেজী শব্দ আমাদের দৈনন্দিন জীবনের কথাবার্তায় গুরুত্বপুর্ণ স্থান দখল করেছে। চেয়ারকে এখন জোর করে ‘কেদারা’ করা যাবে না। তাই বলে ‘আমরা এখন একটি গান শোনাব’ না বলে আমরা এখন একটি সং প্লে করব’ এই কথা বলার কোনো মানে হয় না! আসলে সবকিছু নির্ভর করে দৃষ্টিভঙ্গি ও মানসিকতার ওপর। যদি আমরা ইচ্ছে করি যে আজ থেকে চেয়ারকে কেদারা বলব, ফেসবুককে ‘মুখপঞ্জি’ বলব, মোবাইল ফোনকে ‘মুঠোফোন’ বলব, ফ্লাইওভারকে ‘উড়াল সেতু’ বলব তাহলে কেউ কি আমাদের বাঁধা দিবেন? বোধকরি সবার উত্তর হবেÑ না, কেউ বাঁধা দিবেন না। তাহলে কেন চলছে মাতৃ ভাষার ব্যবহার নিয়ে এতো বিশৃঙ্খলা?
ৎবুধহঁৎ.ধষড়@মসধরষ.পড়স