Home আরোও বিভাগ টিভি গাইড অভিনয় নিয়েই আমার যত ধ্যান-জ্ঞান

অভিনয় নিয়েই আমার যত ধ্যান-জ্ঞান

SHARE
iren-tani

টিভি নাটকের নিয়মিত মুখ আইরিন তানি। খণ্ড নাটক, ধারাবাহিক ও বিজ্ঞাপনে নিয়মিত কাজ করছেন সদা হাস্যোজ্জ্বল এই অভিনেত্রী। কথা হলো আইরিন তানির সঙ্গে-

আনন্দ আলো: কী নিয়ে ব্যস্ত আছেন?

আইরিন তানি: সম্প্রতি একটি বিজ্ঞাপনের শুটিং করেছি। সানবীম আশরাফের নির্দেশনায় এতে পূর্ণিমা আপুর সহশিল্পী হিসেবে কাজ করেছি। এরমধ্যে পারভেজ আমিনের পরিচালনায় ‘উল্টো হাওয়া’ শিরোনামের একটি খণ্ড নাটকে কাজ করেছি। জয়পুর হাটে নাটকটির শুটিং হয়। এতে আমি রওনক হাসানের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করি। এছাড়াও প্রচার চলতি ধারাবাহিকগুলোর শুটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে।

আনন্দ আলো: আপনার অভিনীত ধারাবাহিকগুলো কি কি?

আইরিন তানি: নতুন তিনটি ধারাবাহিক নাটক বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। এটিএন বাংলায় প্রচার হচ্ছে ‘ফুল আর কাঁটা’, চ্যানেল আইতে ‘সমাধান’ ও এশিয়ান টিভিতে ‘হাই সোসাইটি’। এছাড়াও বাংলাভিশনের জন্য জাহিদ হাসান নির্মাণ করছেন ‘বেগাবন্ড’ সেটিতেও কাজ করছি। আর রহমতউল্ল্যাহ তুহিনের পরিচালনায় ‘ক  নাম্বার ৫২’ শিরোনামের একটি নাটকে কাজ করছি।

আনন্দ আলো: মঞ্চ নাটক নিয়েও তো আপনার ব্যস্ততা আছে?

আইরিন তানি: হ্যাঁ। থিয়েটার- এ ‘বেদুয়া’ নাটকে আমি নিয়মিত অভিনয় করছি। এই নাটকটির প্রায় ৬০টার মতো শো করেছি। সম্প্রতি সিলেটে নাটকটির আরেকটি শো অনুষ্ঠিত হয়।

আনন্দ আলো: চলচ্চিত্রের কী খবর?

আইরিন তানি: ‘কল্প-না’ ছবির একটা অংশের শুটিং করা হয়েছে। সামনে শীতের সময় বাকি অংশের শুটিং করা হবে। ভিন্নধর্মী ছবির গল্প এটি।

আনন্দ আলো: আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

আইরিন তানি: অভিনয় নিয়েই আমার যত ধ্যান-জ্ঞান। ভালো কিছু চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের ভালোবাসা নিয়ে থাকতে চাই।

ছবির প্রত্যাবর্তন এবং…

ছোটপর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী ফারজানা ছবি আবারও অভিনয়ে সরব হলেন। প্রায় এক বছর পর তিনি ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালেন। মাতৃত্বকালীন ছুটির পরে তার এই ফেরা। বর্তমানে দুটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ করছেন বলে ছবি জানান। ধারাবাহিক দুটি হলো- আউয়াল চৌধুরী পরিচালিত ‘রোজ রোজ’ ও হিমেল আশফাক পরিচালিত ‘নীল জোসনা’। ধারাবাহিক দুটিতে ছবির বিপরীতে আরমান পারভেজ মুরাদ ও মাজনুন মিজানকে দেখা যাবে।

এ দুটি ধারাবাহিক প্রসঙ্গে ফারজানা ছবি বলেন, ‘দুটি ধারাবাহিকে দু’রকম চরিত্র নিয়ে দর্শকদের সামনে আসছি। রোজ রোজ ধারাবাহিকে একজন প্রতিবাদী মেয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছি। আমি বাংলাদেশ ও বাংলা ভাষার প্রতি খুব সচেতন থাকি। এখন যারা বাংলা ভাষাকে বিভিন্ন ভাবে প্রয়োগ করে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে বাংলাকে বাংলিশের মতো ব্যবহার করতে দেখা যায় এই প্রজন্মকে। এই বিষয়টি সবার সামনে তুলে ধরি। সবাইকে ভাষার প্রতি সচেতন করে তোলার জন্য চেষ্টা করি।’ অন্যদিকে নীল জোসনা ধারাবাহিকে ছবিকে স্ট্রাগল মেয়ের চরিত্রে দেখা যাবে। মফস্বল শহর থেকে ঢাকা শহরে এসে নিজের জন্য এবং পরিবারের জন্য সৎ উপায়ে কিছু করতে যাওয়া কতটা কষ্টকর এমন চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। দীর্ঘদিন অভিনয়ে না থাকা প্রসঙ্গে ছবির ভাষ্য, ‘আমার দুটি সন্তান এখনো ছোট। বড়টার বয়স ২ বছর, ছোটটির ছয় মাস। এ জন্য ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও অভিনয় করতে পারি না। কিন্তু আমি বুঝতে পারি দর্শক আমাকে এখনো দেখতে চান। তাই তো আবার অভিনয়ে ফিরে এলাম।’

ধারাবাহিকে ব্যস্ত বাঁধন

badhonবর্তমানে বিভিন্ন চ্যানেলে বাঁধন অভিনীত বেশকিছু নাটক প্রচার হচ্ছে। এর মধ্যে বাংলাভিশনে অঞ্জন আইচ পরিচালিত ‘মেঘের পরে মেঘ জমেছে’ ও সাগর জাহান পরিচালিত ‘এ কূলে আমি ঐ কূলে তুমি’ প্রচার হচ্ছে। আরটিভিতে প্রচার হচ্ছে আল হাজেন পরিচালিত ‘লড়াই’ ও শামিম জামান পরিচালিত ‘ঝামেলা আনলিমিটড’। প্রতিটি নাটকে তাকে ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে দেখা যাচ্ছে বলে বাঁধন জানিয়েছেন । তিনি বলেন, ‘আমি প্রথম থেকেই ধারাবাহিক নাটকে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। এ জন্য দর্শক আমাকে ধারাবাহিক নাটকে বেশি দেখতে পায়। প্রতিটি নাটকে আমাকে নতুনভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করি। আর বর্তমানে আমার অভিনীত সবকয়টি নাটকের গল্প ও চরিত্রেও নতুনত্ব আছে।’ এদিকে খণ্ড নাটক থেকে কিছুটা দূরে থাকা প্রসঙ্গে বাঁধন বলেন, ‘বিশেষ দিবসগুলোতে কিংবা গল্প পছন্দ হলে দু’একটি খণ্ড নাটকে কাজ করি। সব সময় খণ্ড নাটকে কাজ করতে ভালো লাগে না। খণ্ড নাটকে কাজ করতে গেলে শুটিং স্পটে সারাদিন সময় দিতে হয়। এটি আমার দ্বারা সম্ভব হয়ে ওঠে না।’

অভিনয়ের বাইরে উপস্থাপনায়ও বাঁধন বেশ জনপ্রিয়। বিশেষ করে তার উপস্থাপনায় গাজী টেলিভিশনের ‘আজকের অনন্যা’ অনুষ্ঠানটি দারুণ দর্শকপ্রিয়তা পায়। কাজটি করতে গিয়ে বাঁধনের অনেক নতুন অভিজ্ঞতাও হয়েছে। উপস্থাপনা প্রসঙ্গে বাঁধন জানান, ‘মাঝে মধ্যে উপস্থাপনা করা হয়। বিশেষ করে রান্নার অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করতে ভালো লাগে। এ ছাড়া ‘আজকের অনন্যা’ অনুষ্ঠান উপস্থাপনার পর উপস্থাপনায় বেশিই ডাক পাচ্ছি।’

বছর শেষে কোন এক রাত আঁধারীতে

প্রেমিকের হাত ধরে পালাতে গিয়ে বিপদে পড়ে শিলা। কোন এক রাত আঁধারীতে তার আশ্রয় হয় মফস্বল চিকিৎসক রফিকের বাড়িতে। তারপর ঘটতে থাকে নানা নাটকীয়তা। শুধু এক রাতের প্রেক্ষাপটে নির্মিতব্য নাটকে আনিসুর রহমান মিলন মফস্বল চিকিৎসক রফিকের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। আর বাড়ি পালানো প্রেমিকা শিলার চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাজিরা মৌ। আসিফ  মো. নজরুলের গল্প ভাবনায় ‘রাত আঁধারী’ নামে নাটকটি পরিচালনা করছেন সুমন রেজা। নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন হানিফ পালোয়ান ও আসিফ মো. নজরুল। নভেম্বরের প্রথম দু’দিন নাটকটির শুটিং হয় গাজীপুরের মাওনায়। একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে বছর শেষের নাটক হিসেবে প্রচারিত হবে নাটকটি। নাটকটি নিয়ে আনিসুর রহমান মিলন বলেন, গল্পটির ধরন ভালো লেগেছে। তাই কাজটি করছি। অন্যদিকে নাজিরা আহমেদ মৌ বলেন, ‘চমৎকার একটি গল্পের নাটক রাত আঁধারী। এক রাতের কাহিনি এবং এক পোশাকের চরিত্র আমার। তার ওপর সহশিল্পী মিলন ভাই। আশা করি কাজটি ভালো হবে। নাটকটিতে আরো অভিনয় করেছেন জিদান সরকার, শেলী আহসান, আসিফ নজরুল, হানিফ পালোয়ান, আ. হক, মঈন আহমেদ প্রমুখ।

শোক কাটিয়ে উর্মিলা

লাক্স তারকা উর্মিলা শ্রাবনৱী করের বাবা গত ২২ অক্টোবর না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। বাবার অসুস্থতা এবং মৃত্যুতে বড় ধরনের মানসিক ধাক্কা খান উর্মিলা। তারপর থেকে শুটিং ছেড়ে দূরে ছিলেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। তবে বাবা হারানোর শোক কাটিয়ে আবারো শুটিংয়ে ফিরেছেন তিনি। সম্প্রতি ‘বেটার হাফ’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং করেছেন উর্মিলা। রাজধানীর উত্তরার একটি শুটিং হাউজে চলে নাটকটির শুটিং। উর্মিলা বলেন, ‘এক মাস পর আবার শুটিং শুরু করেছি। বাবা চলে যাওয়ায় আমি অনেক বড় একটা ধাক্কা খেয়েছি। মানসিক ভাবেও ভেঙে পড়েছিলাম। ধীরে ধীরে চেষ্টা করছি আগের মতো আবারো কাজে মনোযোগী হতে। বাবা আমার সকল কাজ ও সাফল্যের অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন। কাজের জন্য ব্যস্ত থাকতে হবে এটা ঠিক। তবে বাবাকে সারাজীবনই মিস করবো।’ ‘বেটার হাফ’ নাটকে উর্মিলার বিপরীতে অভিনয় করেছেন অভিনেতা সাজু খাদেম। নাটকটি পরিচালনা করছেন এজাজ মুন্না। শিগগিরই নাটকটি একটি বেসরকারি চ্যানেলে প্রচারে আসবে।