Home টি-২০ আড্ডা অনেকে বলে আমি নাকি তার ছিড়া! – নওশবা আহমেদ

অনেকে বলে আমি নাকি তার ছিড়া! – নওশবা আহমেদ

SHARE
Nowshaba

মোহাম্মদ তারেক

আনন্দ আলো: আপনি কী নওশবা?

নওশবা আহমেদ: হ্যাঁ। আমি কাজী নওশবা আহমেদ।

আনন্দ আলো: নওশবা নামের অর্থ কী?

নওশবা আহমেদ: নওশবা নামের অর্থ হচ্ছে নতুন রাত।

আনন্দ আলো: এত কাজ থাকতে অভিনয়ে এলেন কেন?

নওশবা আহমেদ: অভিনয়ের প্রেমে পড়েছিলাম তাই অভিনয়ের পিছু ছুটছি।

আনন্দ আলো: জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় যে কাজটি?

নওশবা আহমেদ: প্রথমেই বলব সিসিমপুরের কথা। এরপর ধারাবাহিক ‘ললীতা’ ও রূপকথার গল্প’ নাটক দুটি আমার অভিনয় জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়।

আনন্দ আলো: বাস্তবে যদি আপনি ইকরি হয়ে যান, তখন কী করবেন?

নওশবা আহমেদ: ইকরি হয়েই আমার কন্যা এসেছে আমার জীবন জুড়ে।

আনন্দ আলো: ধরা যাক কোনো গ্রামে আপনি শুটিং করতে গেলেন। ক্যামেরা, লাইট, অ্যাকশন বলার সঙ্গে সঙ্গে আপনার সামনে হালুম এসে হাজির হলো, তখন কী করবেন?

নওশবা আহমেদ: হালুমের সঙ্গে মাছ ধরতে চলে যাব সিসিমপুরে। আর গান গাইব ‘চলছে গাড়ি সিসিমপুরে’।

আনন্দ আলো: কখনো যদি রূপকথার গল্পে হারিয়ে যান তখন কী করবেন?

নওশবা আহমেদ: রাজকন্যা হয়ে সাদা ঘোড়ায় চড়ে অনেক রাজ্য জয় করে চাঁদে যেয়ে চাঁদের বুড়ি হয়ে সারাটা জীবন রূপকথার জগতে রয়ে যাব।

আনন্দ আলো: অভিনয় আমার কাছে নেশা, পেশা, স্বপ্ন নাকি ¯্রফে ফান?

Nowshaba-1নওশবা আহমেদ: অভিনয় আমার অস্তিত্ব…

আনন্দ আলো: যাকে অথবা যাদের দেখে এখনো অভিনয় শিখি…

নওশবা আহমেদ: সিনিয়র অভিনেত্রীদের অভিনয় দেখে প্রতিনিয়ত আমি অভিনয় শিখছি।

আনন্দ আলো: যে সহশিল্পীর অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছি…

নওশবা আহমেদ: পাভেল ভাইয়ের অভিনয় আমাকে মুগ্ধ করেছে।

আনন্দ আলো: যে প্রশ্ন শুনতে শুনতে ক্লান্ত?

নওশবা আহমেদ: সত্যি বলতে আমি এত প্রশ্ন করি যে অন্যরা আমাকে প্রশ্ন করার সুযোগ পায় না।

আনন্দ আলো: যে সময়টা ফ্রেমে বন্দী রাখার মতো।

নওশবা আহমেদ: আমার কন্যার প্রথম দর্শন যখন পেলাম, ওই সময়টা ফ্রেমে বন্দী রাখার মতো।

আনন্দ আলো: বন্ধুরা আমাকে যা বলে খ্যাপায়…

নওশবা আহমেদ: বন্ধুরা কেউ বলে ফড়িং, কেউ বলে প্রজাপতি। তবে অনেকেই পাগলি, তারছিঁড়া বলে বেশি খ্যাপায়।

আনন্দ আলো: আমার চোখে সুদর্শন পুরুষ?

নওশবা আহমেদ: আমার বাবা।

আনন্দ আলো: রেগে গেলে যা করি…

নওশবা আহমেদ: রেগে গেলে কেঁদে ফেলি, দ্রæত কথা বলি। আর ঠাÐা হওয়ার জন্য গান শুনি, গোসল করি।

আনন্দ আলো: একটা ছেলে মানুষি চাওয়া…

নওশবা আহমেদ: আমি একটা ঘোড়া পুষতে চাই।

আনন্দ আলো: আমার সম্পর্কে দুইটা গোপন কথা?

নওশবা আহমেদ: গোপন কথা গোপন রাখতে আমি বিশ্বাস করি।

আনন্দ আলো: আমার প্রিয় বই…

নওশবা আহমেদ: রবীন্দ্রনাথের ছোটগল্প আমার প্রিয় একটি বই।

আনন্দ আলো: যে বইটা বারবার পড়তে মনচায়?

নওশবা আহমেদ: জীবনানন্দ দাসের কবিতার বইটি বারবার পড়তে মন চায়। তার কবিতাগুলো হৃদয়ে নাড়া দেয় সব সময়।

আনন্দ আলো: যে বইটা পড়ে প্রচÐ হেসেছি…

নওশবা আহমেদ: নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘আমার ছেলেবেলা’ বইটি পড়ে প্রচÐ হেসেছি।